মেইন ম্যেনু

নিউ ইয়র্ক টাইমসের বিরুদ্ধে ট্রাম্পের আইনি নোটিশ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প দেশটির প্রভাবশালী দৈনিক নিউ ইয়র্ক টাইমসের বিরুদ্ধে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন। ট্রাম্প দুই নারীকে যৌন হয়রানি করেছেন এমন একটি সংবাদ প্রকাশের জেরে তিনি ওই নোটিশ পাঠিয়েছেন।

নোটিশে তাকে নিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনকে ‘অবিবেচনাপ্রসূত ও মানহানিকর’ উল্লেখ করে তা প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন।

রিপাবলিকান দলীয় এই প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর আইনজীবী মার্ক ই কাসোউইটজ বলেছেন, নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, মানহানিকর এবং এতে পরনিন্দা করা হয়েছে। প্রতিবেদনটি প্রকাশের সময় থেকে এটা স্পষ্ট যে, রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থীকে পরাজিত করতে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ছাড়া কিছু নয়।

তিনি বলেন, মিথ্যা এবং আক্রোশপূর্ণ এই অভিযোগের বিষয়ে পর্যাপ্ত তদন্ত করা হয়নি। এ ছাড়া ওই দুই অভিযোগের একটি ১১ বছর ও অপরটি তিন দশকের বেশি সময় ধরে ঝুলে আছে। এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেছেন।

ট্রাম্পের এই আইনজীবী আরো বলেন, এটা পরিষ্কার যে, অভিযোগের কোনো ভিত্তি না থাকলেও নিউ ইয়র্ক টাইমসের ডোনাল্ড ট্রাম্পের সুনাম ক্ষুণ্ন করতে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এছাড়া ট্রাম্পের জায়গায় অন্য কারো জন্য গ্রাউন্ড তৈরি করে দিতে নিউ ইয়র্ক টাইমস এটি করেছে।

একই সঙ্গে শিগগিরই ট্রাম্পকে নিয়ে প্রকাশিত ওই প্রতিবেদন ওয়েবসাইট থেকে প্রত্যাহার করে ক্ষমা প্রার্থনার আহ্বান জানিয়েছেন ওই আইনজীবী। যদি তা না করা হয় তাহলে নিউ ইয়র্ক টাইমসের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ারও হুমকি দিয়েছেন তিনি।






মন্তব্য চালু নেই