মেইন ম্যেনু

নিজের অজান্তেই সিনেমা হলে কেঁদেছেন শবনম বুবলী!

: চলচ্চিত্রের নবাগত মুখ শবনম বুবলী। এবারের কোরবানি ঈদে তার অভিনীত দুটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। এ ছবি দুটি হচ্ছে শামিম আহমেদ রনির ‘বসগিরি’ ও রাজু চৌধুরীর ‘শ্যুটার’। চলচ্চিত্রে এসেই প্রথম ঈদ পেলেন এবং দুটি ছবি নিয়ে দর্শকের সামনে হাজির হলেন বুবলী।

তাই বলা যায় ভিন্ন এক ঈদ কাটিয়েছেন এই অভিনেত্রী। শুধু তাই নয়, দুটি ছবি থেকেই তার অভিনয়ের জন্য দর্শকের কাছ থেকে ভালো সাড়া পেয়েছেন। হল জুড়ে দর্শকের হাততালি, নায়ক-নায়িকাকে ঘিরে দর্শকের মন্তব্য ও অভিনয়ের প্রশংসা নিজ কানে শুনেছেন তিনি। আবেগে নিজের অজান্তে সিনেমা হলে বসে কেঁদেছেন। দর্শকের প্রতিক্রিয়া জানার জন্য লুকিয়ে সিনেমা হলেও গিয়েছেন এ অভিনেত্রী।

এ প্রসঙ্গে বুবলী বলেন, এবারের ঈদে আমার অভিনীত ছবি দুটি দেখে দর্শক ফেসবুক, ফোনে ও সামনাসামনি বেশ প্রশংসা করেছেন। টঙ্গীর চম্পাকলী সিনেমা হলে লুকিয়ে ছবি দেখতে গিয়েছিলাম। তবে ‘শ্যুটার’ ছবির চেয়ে ‘বসগিরি’ ছবির প্রশংসা বেশি পেয়েছি। তার মানে এই নয় যে ‘শ্যুটার’ মানুষ দেখছে না। এই ছবিটিও দর্শকরা দেখছেন। তবে আমি ‘বসগিরি’ ছবি থেকে বেশি সাড়া পাচ্ছি। দুইদিন আগে ঢাকার কোনও হলে টিকিট না পেয়ে টঙ্গীর সিনেমা চম্পাকলী হলে বোরকা পরে ছোটভাইসহ দর্শকসারিতে ছবি দেখেছি। সিনেমা হলে হাততালি, গান শেষ হলে আফসোস, শিস দেয়া, টিকিট কাটার জন্য লম্বা লাইন সবকিছু মিলে আমার মনে সত্যিই অন্য এক অনুভূতি কাজ করেছে। দর্শকের কাছ থেকে অনেক ইতিবাচক সাড়া পেয়েছি।

উল্লেখ্য, ‘বসগিরি’ ও ‘শ্যুটার’ দুটি ছবিতেই বুবলী নায়ক হিসেবে শাকিব খানকে পেয়েছেন। ‘বসগিরি’ ছবিতে অপু বিশ্বাসের অভিনয়ের কথা থাকলেও নবাগত হিসেবে বড়পর্দায় আসলেন বুবলী। তাই দর্শকরা ‘বসগিরি’ কিংবা ‘শ্যুটার’ ছবি নয়, অনেকটা সময় জুড়ে বুবলীকেই দেখেছেন এবং সিনেমা হল থেকে বের হয়ে অনেকেই তার প্রশংসা করেছেন। এমজমিন






মন্তব্য চালু নেই