মেইন ম্যেনু

নিম গাছে রাতভর জাপানী যুবক, অতপর…

একটি নিমগাছে রাতভর চড়ে বসেছিলেন এক জাপানী যুবক। তাকে নামিয়ে আনতে পুলিশ, দমকল, দোভাষী আর শেষমেশ বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী নেমেছিল। অবশেষে মঙ্গলবার ভোরে তাঁকে নামিয়ে এনে এখন হাসপাতালে রাখা হয়েছে।

কলকাতা পুলিশ বলছে শহরের দক্ষিণ-পূর্বের তপসিয়া অঞ্চলে সোমবার রাত দশটা নাগাদ ওই জাপানী যুবক একটি নিমগাছের মগডালে চড়ে বসেন। স্থানীয় মানুষদের কাছ থেকে খবর পেয়ে তপসিয়া থানার পুলিশ পৌঁছয়। কিন্তু ভাষার সমস্যার জন্য প্রথমে তার সঙ্গে কথাবার্তাও বলা যাচ্ছিল না।

পরে অন্য দুই জাপানী নাগরিককে নিয়ে আসা হয় – দোভাষীর কাজ করার জন্য। কারোরই অনুরোধ উপরোধ না শুনে মগডালেই বসে ছিলেন ২৪-২৫ বছরের ওই যুবক।

তাঁকে নামানোর জন্য প্রথমে দমকল আর তারপরে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী পৌঁছয়। তারা প্রায় ৪০ ফুট উঁচু ওই গাছে মই লাগিয়ে, আর তারপরে গাছের ডাল কেটে ফেলে ওই যুবককে নামানোর চেষ্টা করে।

সেই সময়ে মগডাল ভেঙ্গে পাশের একটি পুকুরে পড়ে যান ওই যুবক। পুলিশ তাঁকে ধরে ফেলে তখনই। আর এই করতে করতেই রাত কাবার হয়ে যায়! সকালে ওই জাপানী নাগরিককে চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে কলকাতা পুলিশ জানিয়েছে।

সপ্তাহখানেক আগে ওই যুবক কলকাতায় এসেছিলেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। অন্য দিকে জাপানী উপদূতাবাসের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছে পুলিশ। কেন তিনি নিমগাছের মগডালে উঠেছিলেন আর কেনইবা রাতভর এই নাটক করলেন, সেটা পুলিশ এখনও জানতে পারেনি। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা চলছে এখন।






মন্তব্য চালু নেই