মেইন ম্যেনু

নিরাপত্তা ইস্যুতে সরকারের পদক্ষেপের প্রশংসা

রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে বিদেশিরা সন্তুষ্ট। আমরা আমাদের মতো করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি এবং এতে তারা অত্যন্ত সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন।এর পরও যদি তারা সতর্কতা জারি করে তাহলে সেটা তাদের ব্যাপার।

আজ বুধবার সকাল ১১টার দিকে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দপ্তরে ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়ার রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে বৈঠক শুরু হয়। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে বৈঠক চলে। পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংকালে বলেন, আমরা তাদেরকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত অবহিত করেছি।নিরাপত্তার জন্য যা যা দরকার সরকার তা তা করতে প্রস্তুত।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তাদেরকে বলেছি, আপনাদের কাছে যদি কোনো সুনির্দষ্ট তথ্য প্রমাণ থাকে তাহলে আমাদেরকে তা সরবরাহ করুন। জবাবে তারা কোনো তথ্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তারা বলেছেন, আমাদের সরকারের অনুমতি ছাড়া কোনো তথ্য দেয়ার বিধান নেই। বৈঠকে দুই বিদেশি হত্যা মামলার অগ্রগতি নিয়েও আলাপ হয়েছে।তবে আমরা খুব শীঘ্রই দুই বিদেশি হত্যার রহস্য বের হবে। আমরা আপনাদেরকে এ বিষয়ে সহসাই জানাবো।

সূত্র জানায়, কূটনীতিকরা দেশের সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেন। পাশাপাশি তাদের অবস্থানও ব্যাখ্যা করেন।

গত মাসের ৩০ সেপ্টেম্বর রাজধানীর গুলশানে ইতালিয়ান নাগরিক তাভেল্লা সিজারকে খুন করে দুর্বৃত্তরা। এর কয়েকদিন পর রংপুরে খুন হন জাপানি নাগরিক হোশিও কোনিও। এই দুই ঘটনার পর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ তাদের নাগরিকদের জন্য সতর্কতা জারি করে। কিছু দেশে এখনও সেই সতর্কতা বহাল রযেছে।






মন্তব্য চালু নেই