মেইন ম্যেনু

নির্বাচনী কর্মকর্তাকে মারধর: আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন এমপি মোস্তাফিজুর

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা নির্বাচনী কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী। বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর হোসাইন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) বেলা ১১টার দিকে বাঁশখালীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাজ্জাদ হোসাইনের আদালতে আত্মসমর্পণ করে তিনি জামিন আবেদন করেন। পরে আদালত তাকে জামিন দেন।

বাঁশখালী আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আ ন ম শাহাদাত আলম বলেন, আমরা আদালতকে জানিয়েছি, সংসদে বাজেট অধিবেশন চলছে। বাজেট অধিবেশনের ১৫ দিন আগে ও ১৫ দিন পরে সাংসদকে গ্রেফতারের সুযোগ নেই। এছাড়া মামলায় সুনির্দিষ্ট কাউকে সাক্ষী করা হয়নি। কে কোন অপরাধ সংঘটিত করেছে তারও বিবরণ নেই এজাহারে। তদুপরি এমপি স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেছেন। তাকে জামিন দিলে পালানোর কোনো আশঙ্কা নেই।

তিনি আরো জানান, অন্য দুইজন বাহারছড়া ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী তাজুল ইসলাম বরমা ডিগ্রি কলেজের প্রদর্শক এবং স্থানীয় ওলামা লীগ নেতা মাওলানা আকতার। এসব বিষয় বিবেচনা করে আদালত তাদেরও জামিন মঞ্জুর করেছেন।

গত ১২ জুন হাইকোর্টে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি আমির হোসেনের ব্যাঞ্চ আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে ২০ জুনের মধ্যে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, গত ১ জুন বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে নির্বাচন কমিশনের এক কর্মকর্তাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত ও গালিগালাজের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। পরে আঞ্চলিক নির্বাচনী কর্মকর্তা নির্বাচন কমিশনে লিখিত অভিযোগ পাঠালে বাঁশখালীর ১১ ইউপিতে ৪ জুন নির্ধারিত ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয় এবং ৩ জুন ইসির নির্দেশে মোস্তাফিজুরসহ কয়েকজনকে আসামি করে মামলা হয়।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই