মেইন ম্যেনু

পঞ্চম ধাপের নির্বাচনে ১১ জনের প্রাণহানি

পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিত ৭১৭টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ১১ জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। এর আগে শনিবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

এদিকে নির্বাচন চলাকালীন জামালপুরে চার, চট্টগ্রামে পটিয়ায় দুই, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে দুই এবং কুমিল্লায় একজন নিহত হয়েছেন। এদিকে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নারায়ণগঞ্জে একজন এবং পঞ্চগড়ে একজন নিহত হয়েছেন।

ইসির তথ্য অনুযায়ী, পঞ্চম ধাপে ৪৫ জেলার ৯৩ উপজেলায় ৭১৭টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এরমধ্যে ৫৩টি কেন্দ্র স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন।

পঞ্চম ধাপে আওয়ামী লীগ ৭২৬ জন, বিএনপির ৬২৯ জন, জাতীয় পার্টির ১৭৭ জন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ ২১জন, বিকল্পধারা বাংলাদেশ ২ জন, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি ১৩ জন, ইসলামী আন্দোলন ১২২ জন, ইসলামী ফ্রন্ট বাংলাদেশ ১১ জন, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি ৬ জন ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি ১ জন প্রার্থী দিয়েছে।

এছাড়া বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির ৫ জন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের ৬ জন, বাংলাদেশ ইসলামিক ফ্রন্টের ৭ জন ও অন্যান্য ১ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আবার স্বতন্ত্র থেকেও ১ হাজার ৫২৭ জন প্রার্থী অংশ নিয়েছেন।

এছাড়া আওয়ামী লীগের ৪১ জন প্রার্থী ইতোমধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই