মেইন ম্যেনু

নির্বাচনের ফলাফল বাতিলের আবেদন করলেন ওমর সানি

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের ফলাফল বাতিল চেয়ে নির্বাচনে দায়িত্বে থাকা আপিল বিভাগের কাছে আবেদন করেছেন সভাপতি পদে পরাজিত প্রার্থী ওমর সানি। রোববার বিকেলে ওমর সানি লিখিত আবেদন করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নির্বাচনে দায়িত্বে থাকা প্রধান নির্বাচন কমিশনার মনতাজুর রহমান আকবর।

তিনি বলেন, ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে ওমর সানি লিখিত আবেদনপত্র দিয়েছেন। এ ব্যাপারে ৯ এপ্রিল (মঙ্গলবার) সিদ্ধান্ত দেয়া হবে।

নির্বাচনে আপিল বিভাগে প্রধান দায়িত্বে ছিলেন নাসিরুদ্দিন দিলু। তার দুই সহকারী হিসেবে ছিলেন খোরশেদ আলম খসরু এবং মোহাম্মদ শামসুল আলম।

এ প্রসঙ্গে আপিল বিভাগের চেয়ারম্যান নাসিরউদ্দিন দিলু বলেন, আমরা আবেদনের ব্যাপারে জেনেছি। মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় এক সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। যেহেতু অনেক ব্যবধানে বিজয়ীরা জিতেছেন সেখানে নির্বাচন বাতিল করা সম্ভব হবে কিনা সন্দেহ আছে। মঙ্গলবার এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

উল্লেখ্য, শনিবার (৬ মে) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি পদে নির্বাচিত হন মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খান। মিশা সওদাগর ২৫৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ওমর সানী পেয়েছেন ১৫৩ ভোট। অপরদিকে জায়েদ খান ২৭৯ ভোট পেয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী অমিত হাসান পেয়েছেন ১৪৫ ভোট।

সহ-সভাপতি পদে রিয়াজ ৩২৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী নাদির খান পেয়েছেন ২৬৫ ভোট।

কার্যনির্বাহী পরিষদে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন সাইমন সাদিক। তিনি মোট ভোট পেয়েছেন ৩৬১।

কার্যনির্বাহী পরিষদে অন্যান্যদের মধ্যে নির্বাচিত হয়েছেন সুব্রত (৩১০ ভোট), আরমান (২৬৫), রোজিনা (৩৪৪ ভোট), অঞ্জনা ( ৩২২ ভোট), সুশান্ত (৩৪২ ভোট), আলীরাজ (৩০৩ ভোট), মৌসুমী (৩৪৯ ভোট), পূর্ণিমা (২৮২ ভোট), পপি (৩০২ ভোট), ফেরদৌস (২৬১ ভোট), নাসরিন (২৬৮ ভোট), জেসমিন (৩২৬ ভোট), ইমন (২৬২ ভোট), জ্যাকি আলমগীর (২৯৫ ভোট), জাকির হোসেন (১৯০ ভোট) ও কমল (২৪২ ভোট)। নির্বাচন কমিশনারের স্বাক্ষর করা কাগজ থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

নির্বাচনে মোট প্রার্থী ছিলেন ৫৭ জন। ৬২৪ জন ভোটারের মধ্যে ৫৫৮ জন ভোট প্রদান করেন, যারা প্রত্যেকেই চলচ্চিত্রের নিবন্ধিত শিল্পী।






মন্তব্য চালু নেই