মেইন ম্যেনু

নির্বাচনে হেরে গিয়ে মসজিদে দেওয়া ফ্যান ফেরত নিলেন প্রার্থী

দলীয় প্রতীকে দেশের ইতিহাসে সর্বপ্রথম বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচন তফসীল অনুযায়ী ২৮শে মে পঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিশোধ নির্বাচনে

ভোটে হেরে নিজের টাকায় মসজিদে দান করা ফ্যান খুলে নিলেন এক মেম্বার প্রার্থী হাসান আলী।

বিষয়টি নিয়ে এলাকায় নানা মুখরোচক আলোচনা সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার ১২ং সালান্দর ইউনিয়নে। ওই ইউনিয়নের ডাংগাপারা নামক গ্রামের ভোটাররা ভোট দেয়ার অঙ্গীকার করায় নিজের টাকায় মসজিদে দান করা ফ্যান খুলে নিলেন এক মেম্বার প্রার্থী হাসান আলী।

নিজের টাকায় মসজিদে দান করে উক্ত এলাকার ভোট না পাওয়া, নির্বাচনে হেরে যাওয়ায় মসজিদের ফ্যান খুলে নিলেন মেম্বার প্রার্থী হাসনা আলী । (২৮ মে) অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে হেরে গিয়ে তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে এই কাজটি করেন।

স্থানীয়রা জানায়, নির্বাচনী প্রচারণার সময় গ্রামে গ্রামে ঘরোয়া বৈঠকে এলাকার মসজিদটিতে কোন ফ্যান না থাকায় তিনি ওইখানে ফ্যান কিনে দেন, শর্ত দিয়েছিলেন নির্বাচনে তালা প্রতীকে তাকে ভোট দিতে হবে। তবে নির্বাচনে তিনি পরাজিত হন। ওই গ্রামে ভোট না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে কিছুদিন পর ফ্যানগুলো খুলে নেন।

মেম্বার প্রার্থী হাসান আলী বলেন, নির্বাচন এর আগেই আমি ফ্যান কিনে দিলাম যেন শান্তিতে নামাজ পরতে পারে, গ্রামবাসীর এতো বড় উপকার করার পরেও ভোটাররা আমাকে ভোট দেয়নি। এ কারণে আমি নিজ থেকেই ফেরত নিয়েছি।






মন্তব্য চালু নেই