মেইন ম্যেনু

নির্বাচন সুষ্ঠু হলে জামানত হারাবে আ.লীগ

নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হলে আওয়ামী লীগের জামানত হারাবে বলে দাবি করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় ঢাকা মহানগর বিএনপি আয়োজিত এক দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ দাবি করেন ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বার বার আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু সরকার সেটা (সমঝোতা) করবে না। কারণ, সমঝোতা করলেই নির্বাচন দিতে হবে। আর নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হলে তাদের (আওয়ামী লীগ) জামানত থাকবে না। সেজন্য দেশনেত্রীর কথা (সংলাপের আহ্বান) সরকারের কানে যায় না।’

ঢাকা মহানগর বিএনপির সাবেক যুগ্ম-আহ্বায়ক আজিজ উল্লাহের রুহের মাগফেরাত কামনায় এ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। নগর বিএনপির আহ্বায়ক ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস এতে সভাপতিত্ব করেন।

সরকারের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘আজকে বড় কোনো মিলাদ, প্রতিবাদ সমাবেশ ও জনসভা করার জন্য জায়গা পাওয়া যায় না। সরকার দেশকে সেই পর্যায়ে নিয়ে গেছে। কথা বলতে গেলেই মামলা। তারপর জেল-জুলুম। গোটা দেশটাকেই একটা কারাগারে পরিণত করা হয়েছে। এভাবে একটি রাষ্ট্র চলতে পারে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা চলছে। সেই মামলা কত দ্রুত শেষ করা যায়, সেই চেষ্টা চলছে। এখন আমাদের বসে থাকলে চলবে না। সংগঠনকে শক্তিশালী করে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে, যাতে দেশনেত্রী রাজনীতি করতে পারেন।’

আজিজ উল্লাহের রুহের মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন জাতীয়তাবাদী ওলামা দলের সভাপতি হাফেজ আব্দুল মালেক।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের ভূঁইয়া, নগর বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক কাজী আবুল বাশার, তাঁতী দলের সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু, স্বেচ্ছাসেবক দলের দপ্তর সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বাচ্চু, যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সহ-সভাপতি কফিল উদ্দিন ভূঁইয়া, ছাত্রদলের দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সাত্তার পাটোয়ারী প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই