মেইন ম্যেনু

নিলামে উঠেছিল নেপোলিয়নের পুরুষাঙ্গ, দাম শুনলে চমকে উঠবে যে কেউ!

প্রাচীনকাল থেকেই পুরুষ শরীর শিল্পীর চোখে অন্যমাত্রা পেয়েছে। সেই আদিম গুহাচিত্র থেকে শুরু করে মাইকেলেঞ্জেলোর ডেভিড। এবং বারবারই শিল্পীর নজর কেড়েছে পুরুষাঙ্গ। ক্যানভাসে বা পাথরে একটি সুঠাম পুরুষ শরীর ফুটিয়ে তুলতে বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে পুরুষাঙ্গের মাপ। লিঙ্গ ঘিরেও রয়েছে নানা ইতিহাস। অবাক করা তথ্য। তারই মধ্যে ৬টি রইল পাঠকদের জন্য।

১. আদিম লিয়ান্ডারথাল যুগে পুরুষাঙ্গে ছিল কাঁটা। হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। একাধিক লিয়ান্ডারথাল জীবাশ্মের পরীক্ষা করে বিজ্ঞানীরা দেখেছেন, সে সময় পুরুষাঙ্গে ছিল শক্ত কাঁটা। সেই কাঁটাই আরও বেশি অনুভূতিশীল করে তুলত লিঙ্গকে। বাঁদর ও ইঁদুরের যৌনাঙ্গে এখনও এই ধরনের কাঁটা দেখা যায়। ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যান্ডফোর্ড ইউনিভার্সিটির গবেষণায় দেখা গিয়েছে, মানব শরীরের বিবর্তন হতে হতে পুরুষাঙ্গের কাঁটা নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছে।

২. পুরুষাঙ্গের নীচের দিকে যে পাতলা চামড়ার আস্তরণটি থাকে, যা সঙ্কোচন ও প্রসারণ হয় সহজেই, সেই চামড়াটি আসলে পুরুষের labia। মহিলাদের যৌনাঙ্গের ভিতর দু’পাশে যেমন নরম চামড়া থাকে, তেমনই পুরুষাঙ্গেও থাকে। যৌন মিলনের সময় লিঙ্গের ওই চামড়াই যোনিতে পুরুষাঙ্গকে মসৃণ গতিবিধিতে সাহায্য করে, সঙ্কোচন ও প্রসারণের মাধ্যমে।

৩. দুটি লিঙ্গ নিয়ে জন্মেছে, এমন পুরুষও রয়েছে। চিকিত্‍‌সা বিজ্ঞানের পরিভাষায় একে বলা হয় ডাইফালাস। দেখা গিয়েছে, বিশ্বে ১০ থেকে ৬০ লক্ষ পুরুষ ডাইফালাসের শিকার। যার জেরে, তাদের লিঙ্গের সংখ্যা দুটি।

৪. আমাজন নদীতে এক ধরনের মাছ রয়েছে, তারা সাধারণত পুরুষের লিঙ্গেই প্রথম কামড় বসায়। নদীতে কোনও পুরুষ নামলে, ওই হিংস্র মাছের টার্গেট থাকে লিঙ্গ। তবে এই প্রজাতির মাছটিকে ঘিরে নানা বিতর্ক রয়েছে।

৫. ফ্রান্সের মহান যোদ্ধা নেপোলিয়ানের লিঙ্গ নিলামে উঠেছিল। ১৯৭৭ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সিতে নেপোলিয়নের লিঙ্গের নিলামে দর ওঠে ৩ হাজার ডলার।

৬. পুরুষ-লিঙ্গকে ইংরেজিতে বলা হয় পেনিস, তা সকলেরই জানা। কিন্তু জানেন কি, পেনিস শব্দটি একেবারেই প্রাচীন নয়? সপ্তদশ শতক পর্যন্তও ইংরেজিতে পুরুষাঙ্গকে বলা হত, ইয়ার্ড বা পিজল। তখন ইংরেজি অভিধানে পেনিসের মানে ছিল লেজ। পরবর্তীকালে তা পরিবর্তন হয়।






মন্তব্য চালু নেই