মেইন ম্যেনু

নিহত দুই জঙ্গি জাকির নায়েকের অনুসারী

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে হামলা চালিয়েছিল সাত জঙ্গি। এদের মধ্যে দু`জন ভারতের বিতর্কিত ধর্মীয় নেতা জাকির নায়েককে অনুসরণ করতেন। এরা হলেন রোহান ইমতিয়াজ এবং নিবরাস ইসলাম। রোহান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের এক নেতার ছেলে। রোহান গত বছর জাকির নায়েকের পিস টিভির একটি অনুষ্ঠান তার ফেসবুক পেজে পোস্ট করেছিল।

জাকির নায়েককে যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডায় নিষিদ্ধ করা হয়েছে। মালয়েশিয়ায় যে ১৬ জন আলেমকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে তার মধ্যে জাকির নায়েক একজন।

এদিকে নিবরাস ইসলাম জাকির নায়েক ছাড়াও আনজেম চৌধুরী এবং শামী উইটনেসকে ২০১৪ সাল থেকে টুইটারে অনুসরণ করে আসছিলেন।

শামী উইটনেসের ২৪ বছর বয়সী মেহেদি বিশ্বাস নামে একটি টুইটার একাউন্ট রয়েছে। তাকে ২০১৪ সালে ভারত থেকে আটক করা হয়। তাকে আইএসের টুইট একাউন্টের সঙ্গে সম্পৃক্ততা থাকার কারণে বিচারের মুখোমুখি করা হয়।

পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত আনজেম চৌধুরী (৪৯) ব্রিটিশ নাগরিক। ব্রিটিশ সন্ত্রাসবিরোধী আইন ভঙ্গ করায় তাকে ইংল্যান্ডে বিচারের মুখোমুখি করা হয়েছে। তিনি তার সমর্থকদের সরাসরি ইরাক ও সিরিয়ায় গিয়ে আইএসকে সমর্থনের জন্য বলতেন।

এসব তথ্য থেকে এটাই প্রমাণ হয় যে নিবরাস বা রোহান এক রাতেই জঙ্গি বা সন্ত্রাসবাদে জড়িয়ে পড়েননি। তারা ফেব্রুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে নিঁখোজ হওয়ার আগ পর্যন্ত প্রায় দু`বছর আগেই জঙ্গিবাদ বা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। আর ধীরে ধীরে সবার অলক্ষ্যে সেই ধারাবাহিকতা চালিয়ে যান। সবশেষে তারা শুক্রবার ওই ভয়াবহ হামলা চালান। ওই হামলায় দেশি-বিদেশি মিলে সর্বমোট ২০ সাধারণ মানুষ ও দুই পুলিশ নিহত হয়েছেন। সূত্র: দ্য ডেইলি স্টার






মন্তব্য চালু নেই