মেইন ম্যেনু

নীরুর যে চেহারা যেন সত্যি তিনিই ঈশ্বর!

নীরুর বাবা ও পরিবারের অন্যান্যদের নির্দেশে গ্রামে নীরু সিংহ নামে প্রতিবছর বসে মেলা। চমকটা এখানেই। এ রকম একটি মেলাতে নীরুর যে চেহারা দেখা গিয়েছে, যেন অবিলক স্বঘোষিত রাধে মা। দামি সোনার গহনায় মোড়া আপাদমস্তক। চোখে মুখেও অবিলক রাধে মা-এর মতো ভঙ্গি। যেন সত্যি তিনিই ঈশ্বর। গত ২১ সেপ্টেম্বর নীরুর জীবন্ত সমাধিস্থ হওয়ার কথা ছিল। যা দেখতে আশপাশের বহু গ্রাম থেকে ভক্তেরা জড়ো হয়েছিলেন।

গত আট বছর ধরে স্থানীয় গ্রামবাসীরা ঈশ্বর বলেই পুজো করে আসছেন। পুরা অমর সিং গ্রামের বাসিন্দারা অবশ্য জানেন না রাধে মা কে বা তার বিরুদ্ধে কী কী অভিযোগ রয়েছে। তারা এটুকুই জানেন, ১৫ বছরের নীরুর কাছে গেলেই সব সমস্যার সমাধান মিটবে। গ্রামবাসীরা বলেন, মাত্র ৬ বছর বয়স থেকে নীরু টের পেত- কবে খরা বিধ্বস্ত গ্রামে বৃষ্টি নামবে। সেই থেকেই গ্রামবাসীরা নীরুকে নাম ধরে ডাকেন না। ডাকেন মা বলে। তাঁর নির্দেশেই গ্রামে তৈরি হয়ে নীরুর নামাঙ্কিত মন্দির।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মন্দির থেকে গ্রেপ্তার করে তাকে বাড়িতেই গৃহবন্দি করে রাখে পুলিশ। পরে ডাক্তার এসে নীরুকে পরীক্ষা করে দেখে জানায়, গত কয়েক বছর ধরে নীরুকে শুধুই তরল পানীয় পান করানো হয়েছে। পুলিশের অভিযোগ, নীরুর বাবা নীরুকে সামনে রেখে, ঈশ্বর বলে প্রচার করে পয়সা রোজগার করতেন। অবশেষে পুলিশ তৎপরতায় নীরু সিং তার সমস্ত সোনার গয়না ও লাল শাড়ি পুলিশের কাছে জমা দিয়ে গ্রামের পাঠশালায় ফেরৎ গিয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই