মেইন ম্যেনু

নীলনকশাকারীদের তথ্য চলে এসেছে

সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের ‘নীলনকশাকারীদের’ তথ্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে চলে এসেছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

সোমবার রাজধানীর মোহাম্মদপুরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত বর্ধিত সভায় তিনি এ তথ্য জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছে। ইতালিয়ান নাগরিক তাভেল্লা সিজার হত্যাকাণ্ড থেকে শুরু করে সর্বশেষ গুলশান ও শোলাকিয়া হামলা এরই ধারাবাহিকতা। তবে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের অনেককে চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব ঘটনার নীলনকশাকারীদের তথ্য আমাদের কাছে চলে এসেছে। ষড়যন্ত্র করে লাভ হবে না।’

তিনি বলেন, ‘প্রতিদিন আমাদের সামনে নতুন করে একটি চ্যালেঞ্জ আসছে। আপনারা দেখেছেন, গুলশান ট্রাজেডির পরপরই শোলাকিয়া ট্রাজেডি ঘটেছে। এ দেশে যতগুলো হত্যাকাণ্ড ঘটেছে সবগুলো হত্যাকাণ্ড আমাদের নিরাপত্তাবাহিনী আইডেন্টিফাইড করেছে। অনেক হত্যাকাণ্ডের জন্য আমরা কয়েক শ’ অপরাধীকে শনাক্ত করে আমরা গ্রেপ্তার করেছি।’

মন্ত্রী বলেন, ‘যে ঘটনা গুলশানে ঘটলো সেই ঘটনায় আমরা অবাক বিস্ময়ে দেখলাম কিছু তরুণ যারা সমাজের উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত। এরা একটা ভিন্ন মোটিভ নিয়ে এসেছে। আমরা এগুলো উদঘাটন করেছি। এগুলো অমানুষের কাজ, অধর্মের কাজ। কোন ধর্মে মানুষ হত্যা করার কোন স্থান নেই। এ সমস্ত ষড়যন্ত্রকারীদের আমরা চিহ্নিত করেছি। তাদের বিরুদ্ধে আজকে সমস্ত জাতি ঐক্যবদ্ধ। যেই এই ষড়যন্ত্র করুক কিছুই লাভ হবে না, শুধু বিভ্রান্ত করা ছাড়া।’

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি রহমতুল্লাহর সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আন্তর্জাতিক সম্পাদক কর্নেল (অব.) ফারুক খান, সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই