মেইন ম্যেনু

সম্পদের হিসাব দুদকে জমা

নূর হোসেনের সোয়া ৬ কোটি টাকার সম্পদ গেলো কোথায়?

দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) নিজ সম্পদের হিসাব দাখিল করেছেন নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুন মামলার প্রধান আসামি নূর হোসেন। জমা দেয়া ওই সম্পদ বিবরণীতে নূর হোসেন এক কোটি ৭৮ লাখ টাকার সম্পদ হিসাব দেখিয়েছেন।

সোমবার দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য এ তথ্য নিশ্চিত করেন। গতকাল রোববার বিকেলে কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে দুদক সচিব আবু মো. মোস্তফা কামালের কাছে নিজ সম্পদের হিসাব দাখিল করেছেন আসামি নূর হোসেন।

এদিকে নূর হোসেনের নামে-বেনামে প্রায় ৮ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদের খোঁজ পাওয়া যায় অনুসন্ধানে। তাহলে নূর হোসেনের সেই সোয়া ৬ কোটি টাকার সম্পদ গেলো কোথায়?

প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য এ বিষয়ে জানান, দুদক এখন তার এ সম্পদের হিসাব যাচাই-বাছাই করে দেখবে। সম্পদের কোনো তথ্য গোপন করলে অথবা বিবরণীতে দেয়া তথ্যের বাইরে কোনো সম্পদ পেলে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে দুদক সূত্র জানায়, ২০১৪ সালের ১৯ মে অনুসন্ধান শুরু করার পর নূর হোসেনের নামে-বেনামে প্রায় ৮ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদের খোঁজ পাওয়া যায়। তবে তিনি ভারতে পলাতক থাকায় এতোদিন সম্পদ বিবরণীর নোটিশ জারি করতে পারেনি দুদক। ফলে অনুসন্ধান কাজ কার্যত বন্ধ ছিল।

যদিও অনেক আগেই দুদকের অনুসন্ধান কর্মকর্তা উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলম সম্পদ বিবরণীর সুপারিশ করে কমিশনে অগ্রগতি অনুসন্ধান প্রতিবেদন জমা দিয়েছিলেন। কিন্তু কমিশন থেকে অনুমতি মেলেনি। তাই সম্পদের নোটিশ দিতে আইনি কোনো বাধা না থাকায় নভেম্বর গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার-২ এর জেল সুপারের মাধ্যমে নূর হোসেনকে সম্পদ বিবরণী দাখিলের নোটিশ জারি করা হয়।

উল্লেখ্য, ১৯৮৫ সালের ট্রাক হেলপার নূর হোসেন ১৯৮৭ সালে ট্রাক ড্রাইভার, ১৯৯১ সালে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, ২০১২ সালে সিটির কাউন্সিলর হন।






মন্তব্য চালু নেই