মেইন ম্যেনু

নেপালকে হিন্দু রাষ্ট্রে ফিরিয়ে নেয়ার প্রচেষ্টা ব্যর্থ

ধর্মনিরপেক্ষ নেপালকে হিন্দু রাষ্টে ফিরিয়ে নেয়ার কট্টরপন্থিদের এক প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। সোমবার গণ পরিষদে এক ভোটাভুটিতে শোচনীয়ভাবে পরাজিত হয় হিন্দুপন্থী জাতীয় গণতান্ত্রিক দলের আনা প্রস্তবটি।

নেপালের জনসংখ্যার বেশির ভাগইহিন্দু ধর্মাবলম্বী। এই যুক্তি তুলে দেশটিকে ফের হিন্দু রাষ্ট্রে ফিরিয়ে নেয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন হিন্দুপন্থী জাতীয় গণতান্ত্রিক দলের নেতা কমল থাপা। প্রথমে গণ পরিষদের চেয়ারম্যান সুবাসচন্দ্র নেমবাং তার আনীত প্রস্তাটিব প্রত্যাখ্যান করেন। কিন্তু নিজ দাবিতে অটল থাকেন থাপা। ফলে সোমবার তার ওই প্রস্তাবের ওপর নেপালি গণ পরিষদে ভোটাভুটি হয়। ৬০১ সদস্যের পরিষদে কমল থাপার প্রস্তাবের পক্ষে ভোট পড়ে মাত্র ২১টি।

২০০৭ সাল পর্যন্ত নেপাল বিশ্বের একমাত্র হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত ছিল। পরে দেশটিতে রাজতন্ত্রের বদলে গণতনান্ত্রিক সরকার ব্যবস্তা চালু হওয়ার সময় ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষিত হয় এই দেশটি।

চলতি বছর জুলাই মাসে গণভোটের মাধ্যমে নেপালের সাধারণ মানুষ রায় দেন, ‘ধর্মনিরপেক্ষ’ হিসেবে নয়, ‘হিন্দু’ বা ‘স্বাধীনধর্মী’ রাষ্ট্রের নামে পরিচিতি চান তাঁরা। সোমবার গণ পরিষদে থাপার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান হওয়ার পর কাঠমান্ডুর নিউ বানেশ্বর এলাকায় হলুদ ও গেরুয়া পতাকা নিয়ে বিক্ষোভ দেখান হিন্দুপন্থী জাতীয় গণতান্ত্রিক দলের কর্মী-সমর্থকেরা। তাঁরা মিছিল করে গণ পরিষদের ভিতর ঢুকতে চাইলে পুলিশ ও নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে তাঁদের। এসময় তারা বেশ কয়েকটি যানবাহনের হামলা চালায়।






মন্তব্য চালু নেই