মেইন ম্যেনু

নেপালের নতুন সংবিধানে প্রথম সংশোধন

সংখ্যালঘু মদেশি সম্প্রদায়ের সঙ্গে চার মাস ধরে চলা সংকট নিরসনে নতুন সংবিধান সংশোধনে ভোট হয়েছে নেপালের পার্লামেন্টে। শনিবার পার্লামেন্টের দুই-তৃতীয়াংশ সদস্য সংবিধান সংশোধনের পক্ষে ভোট দিয়েছেন।

গত বছর নেপালে নতুন সংবিধান গ্রহণ করা হয়। ওই সংবিধানে মদেশি সম্প্রদায়ের জন্য আটটি জেলা নির্দিষ্টকরণ ও পার্লামেন্টে তাদের জন্য সংরক্ষিত আসনের সংখ্যা বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে আসছে মদেশিরা। তবে তাদের সেই দাবি না মেনেই নতুন সংবিধান পাস হয় পার্লামেন্টে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ মদেশিরা ভারত সীমান্তে অবস্থান ধর্মঘট শুরু করলে পণ্যবাহী ট্রাক নেপালে প্রবেশ বন্ধ হয়ে যায়। এর ফলে নেপালে জ্বালানি ও নিত্যপণ্যের সংকট দেখা দেয়।

সংশোধিত সংবিধানে মদেশিদের দুটি প্রধান দাবি যুক্ত করা হয়েছে। এর একটি হচ্ছে জনসংখ্যার ভিত্তিতে পার্লামেন্টে সমসংখ্যক আসন বণ্টন। পার্লামেন্টের ৪৬১ জন সদস্য প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছেন। বিপক্ষে ছিলেন মাত্র সাত আইনপ্রণেতা। ভোট শেষে স্পিকার ওনসারি ঘারতি মাগার বলেন, ‘দুই-তৃতীয়াংশ সদস্যের ভোটে আমি নেপালের সংবিধানের প্রথম সংশোধনী পাস হওয়ার ঘোষণা দিচ্ছি।’

এদিকে মদেশি আইনপ্রণেতারা সংশোধনীতে তাদের দাবি পূরণ হয়নি ও এটি অসম্পূর্ণ দাবি করে ভোট বর্জন করেন।






মন্তব্য চালু নেই