মেইন ম্যেনু

নোয়াখালীতে দুদকের মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

এম.এ আয়াত উল্যা, স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী : অবৈধ সম্পদ অর্জন ও ভোগ দখল এবং হিসাব বিবরণীতে সম্পদের হিসাব গোপন করে ভূয়া তথ্য প্রদানের অভিযোগে নোয়াখালীর ছাতারপাইয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহমানকে আটক করে পুলিশ।

পরে দুর্নীতি দমন কমিশন নোয়াখালী সমন্বয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. মশিউর রহমান বাদী হয়ে সুধারাম থানায় দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০১৪ এর ২৬ (২) ও ২৭ (১) ধারায় মামলা দায়ের করলে তাকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। সোমবার (০৩ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে জেলা শহর মাইজদীতে দুদকের কার্যালয়ের পাশ্ববর্তী সড়ক থেকে দুদকের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সুধারাম থানা পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করে।

পরে বিকেলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেয়। গ্রেফতারকৃত আব্দুর রহমান নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ১নং ছাতারপাইয়া ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান। দুদক কার্যালয়ের কর্মকর্তারা জানায়, গ্রেফতারকৃত আব্দুর রহমান চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগের তদন্তকালে প্রায় কোটি টাকা মূল্যের সম্পদের হিসাব পাওয়া যায়।

যার মধ্যে ৩৮ লাখ ২৪ হাজার ৬৪১ দশমিক ৬৩ টাকা মূল্যের সম্পদ অর্জনের বৈধ হিসাব নেই। অথচ ওই সম্পত্তি তিনি ভোগ দখল করছেন। এছাড়া ২০১৫ সালে কমিশনে তার দাখিলকৃত সম্পদের হিসাব বিবরণীতে ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৮২১ দশমিক ৪৩ টাকা মূল্যের সম্পদের হিসাব গোপনপূর্বক মিথ্যা তথ্য সম্বলিত সম্পদ বিবরণী দাখিল করে। দুর্নীতি দমন কমিশন নোয়াখালী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. মশিউর রহমান জানান, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহমানের বিরুদ্ধে কমিশনে দাখিলী দুই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত হয়েছে।

ওই তদন্তে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়। পরে কমিশনের ঢাকা ও চট্টগ্রামের নির্দেশে তাকে গ্রেফতার পূর্বক তার বিরুদ্ধে সুধারাম থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে। সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন ইউপি চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার ও মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গ্রেফতারকৃত চেয়ারম্যানকে বিকেলে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই