মেইন ম্যেনু

নোয়াখালীর হাতিয়ায় জেলের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদী থেকে আলা উদ্দিন (২৮) নামের এক মাছধরা নৌকার জেলের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার সকালে মেঘনার ঠেহেঙ্গার চর এলাকা থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত আলা উদ্দিন জেলার সূবর্ণচর উপজেলার পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নের চরমজিদ গ্রামের করিম বাজারের মৃত আমিনুল হকের ছেলে। নিহতের চাচা নুরুল আলম জানান, ৩ জুলাই শুক্রবার ভোরে চরমজিদ এলাকার আনোয়ার মাঝির ২টি মাছধরার নৌকা নিয়ে মেঘনা নদীতে যায় আলা উদ্দিন ও তার ভাই আনোয়ার সহ ১৭-১৮জন জেলে। ওই দিন সকাল ১১টার দিকে মেঘনার সন্ধীপ সীমান্তবর্তী ঠেহেঙ্গার চর এলাকায় একদল জলদস্যু তাদের নৌকাগুলোতে হামলা চালায়। এসময় দস্যুরা নৌকার মাঝি আনোয়ারকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম তার ভাই আলা উদ্দিনকে গুলি করে নদীতে ফেলে দেয় এবং অন্য জেলেদের পিটিয়ে জখম করে। পরে জলদুস্যরা মাছসহ নৌকার মালামাল লুট করে চলে যাওয়ার পর আনোয়ার মাঝিসহ আহত অন্য জেলেরা তীরে উঠে আসে। আহতদের মধ্যে আনোয়ার মাঝিকে নোয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং অন্যদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরবর্তীতে আলা উদ্দিন মাঝির লোকজন তাকে মেঘনা নদীর বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও কোন সন্ধান পায়নি। সোমবার সকালে পুনরায় আলা উদ্দিনকে খোঁজতে বের হলে ঠেহেঙ্গার চরের একটি ছোট দ্বীপের কাছে গুলিদ্ধি অবস্থায় আলা উদ্দিনের মৃতদেহ দেখতে পেয়ে উদ্ধার করা হয়। হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল হুদা জানান, মাছ ধরার নৌকায় জেলেদের উপর দস্যুদের হামলা ও একজন নিখোঁজের ঘটনা আমরা বিভিন্ন ভাবে শুনেছি। আজ সকালে একজন মাঝির মৃতদেহ উদ্ধারের কথা শুনেছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই