মেইন ম্যেনু

নয়া মোড়, এবার সিবিআই জেরার মুখে শাহরুখ!

রোজভ্যালি-কাণ্ডে নয়া মোড়। সিবিআইয়ের নজরে এবার নাইট রাইডার্স (KKR) -রোজভ্যালি চুক্তি। কি চুক্তি হয়েছিল এই ক্রিকেট টিমের সঙ্গে, কত টাকা লেনদেন হয়েছিল সমস্ত কিছু খতিয়ে দেখছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। জানা গিয়েছে, রোজভ্যালির সঙ্গে কেকেআরের চুক্তি করিয়ে দিতে সাহায্য করেছিলেন এক প্রভাবশালী ব্যাক্তি।

কার্যত তাঁর অঙ্গুলিহেলনেই কেকেআরের সঙ্গে যুক্ত হয় রোজভ্যালি। সুতরাং, এই চুক্তির পাশাপাশি ওই প্রভাবশালীর কি সম্পর্ক রয়েছে তা এখন খতিয়ে দেখছেন সিবিআই আধিকারিকরা। প্রয়োজনে তাঁকেও জেরা করতে পারে সিবিআই।

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন, রোজভ্যালির সঙ্গে কেকেআরের যে চুক্তি হয়, তাতে বিপুল টাকা লেনদেন হয়। মূলত কালো টাকা এভাবে সাদা করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও এই বিষয়ে এখনও নিশ্চিত নন তদন্তকারীরা। তবে এই লেনদেনের বেশ কিছু তথ্য ইতিমধ্যে সিবিআইয়ের হাতে এসেছে বলে জানা গিয়েছে। এমনকি, রোজভ্যালির দফতরে তল্লাশি চালিয়েও চুক্তি সংক্রান্ত একাধিক তথ্য হাতে পেয়েছে সিবিআই। সেই সমস্ত নথি, তথ্য পরীক্ষা করে এক প্রভাবশালীর যোগ পায় সিবিআই। ফলে তাঁকে জেরা করে আরও বেশ কিছু তথ্য পেতে চাইছেন তদন্তকারীরা।

যদিও ইতিমধ্যেই রোজভ্যালির সঙ্গে কেকেআর-এর ‌চুক্তির নথি পরীক্ষা করে দেখেছে ইডি। কেকেআর-এর এক কর্তাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ইডি। সূত্রের খবর কেকেআর-এর সঙ্গে চুক্তি আগে রোজভ্যালির সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন এক প্রভাবশালী ব্যক্তি। এনিয়ে ফের তৎপর হচ্ছে সিবিআই।

আর নতুন করে তৎপর হওয়াতে অনেকের মধ্যেই নানারকম গুঞ্জন শুরু হয়েছে। একাংশের মতে, এবার কেকেআর-রোজভ্যালির চুক্তির ফাঁস খুলতে খোদ শাহরুখ খানকে তলব করতে পারে সিবিআই! কারণ, রোজভ্যালির মন্দারমনির হোটেলের বিজ্ঞাপনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন শাহরুখ। ফলে জল্পনা তৈরি হয়েছে। যদিও এই বিষয়টি শুধুই জল্পনা, এই বিষয়ে সিবিআইয়ের তরফে কিছু জানানো হয়নি।-কলকাতা২৪






মন্তব্য চালু নেই