মেইন ম্যেনু

পটুয়াখালীতে পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে আসামির সেলফি!

জেলা পরিষদ কর্মচারীদের জন্য উত্তোলিত বৈশাখী ভাতা লটু করা ও পটুয়াখালী জেলা পরিষদের হিসাবরক্ষক জয়দেব চন্দ্র বলকে (৪০) তার অফিস কক্ষে মারধর করার ঘটনায় থানায় মামলা হলেও সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আতিকুর রহমান পারভেজকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

উল্টো মামলায় অভিযুক্ত পারভেজ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, পুলিশ সুপার, সহকারী পুলিশ সুপারসহ (সদর সার্কেল) প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে সেলফি তুলে ফেসবুকে পটুয়াখালী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ নামে নিজ প্রফাইল পিকচার দিয়ে তৈরি করা পাতায় সে সব ছবি পোস্ট করায় শহর জুড়ে আলোচনার ঝড় উঠেছে।

এদিকে ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে গত ১২ এপ্রিল থেকে পটুয়াখালী জেলা পরিষদ কার্যালয়ে চলছে কর্মবিরতি। আসামি গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত আগামী ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে এই কর্মবিরতি। তবে বিচার নিয়ে শঙ্কিত হামলা শিকার জয়দেবসহ জেলা পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

অপরদিকে, হামলার শিকার আহত জয়দেবের ছবিসহ বিচারের দাবিতে জেলা পরিষদের প্রধান ফটকে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা কর্মচারীরা একটি ব্যানার লাগালেও ছাত্রলীগ নেতা পারভেজ তার লোকজন দিয়ে ব্যানারটি নিয়ে যান। আর ব্যানার নিয়ে যাওয়ার পরে পারভেজ মোবাইল ফোনে যে নির্দেশনা দিয়েছিলেন মোবাইল ফোনের সেই অডিও কল রেকর্ডও ফেসবুকে প্রকাশ পাওয়ায় শহর জুড়ে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দু এখন পারভেজ।

উল্লেখ্য, গত ১২ এপ্রিল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পটুয়াখালী সরকারি কলেজের ছাত্রলীগ নেতা পারভেজ ও তার সহযোগিরা জেলা পরিষদের হিসাবরক্ষক জয়দেব চন্দ্র বলকে অফিস কক্ষে গিয়ে মারধর করে মারাত্মকভাবে জখম করেন। এ ঘটনায় ১৪ এপ্রিল পারভেজের নাম উল্লেখ করে ৪-৫ জনকে অজ্ঞাত করে একটি মামলা করা হয় পটুয়াখালী সদর থানায়।

মামলা দায়েরের পর ওই দিনই পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক আফজাল হোসেনের পটুয়াখালী নিজবাস ভবনে উপস্থিত হন পটুয়াখালী জেলা জেলা প্রশাসক শামীমুল হক সিদ্দিকী, পুলিশ সুপার সৈয়দ মোশফিকুর রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সাহেব আলী পাঠান, সদর থানা পুলিশের অফিসার ইনর্চাজ তারিকুল ইসলামসহ আ.লীগের নেতাকর্মীরা। তাদের সঙ্গে একটি সেলফি তুলে পটুয়াখালী কলেজ ছাত্রলীগ নামে একটি ফেসবুক আইডিতে প্রকাশ করেন পারভেজ।

এ বিষয়ে পটুয়াখালীর পুলিশ সুপার সৈয়দ মোসফিকুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আইনগতভাবে যতটুক সাদ্ধ পুলিশ তাই করবে।






মন্তব্য চালু নেই