মেইন ম্যেনু

পত্নীতলায় ইউএনও’র উদ্যোগে বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল স্কুলছাত্রী

মোসা: শিউলি খাতুন, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর পত্নীতলায় ইউএনও উদ্যোগে বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেলেন ৫ম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রী।

জানা যায়, বুধবার দুপুরে পত্নীতলা উপজেলার আকবরপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ভগবানপুর গ্রামের আজিজুল হকের কন্যা আঙ্গুরী আক্তার (১০) নামের ৫ম শ্রেণির স্কুল পড়ুয়া ছাত্রীর সঙ্গে জেলার বদলগাছি উপজেলার চাঁদপুর গ্রামের কিনা মণ্ডলের পুত্র এনামুল হক (২০) এর বিয়ের দিন ধার্য ছিল। বিয়ের আয়োজনও পুরো দমে চলছিল। তখন দুপুর ১১টা বাজে। ঠিক সেই সময় পত্নীতলা ইউএনও ব্যস্ততার কারণে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশ এর জেলা সমন্বয়কারী আছির উদ্দীনকে জানালে তিনি উপজেলার আকবরপুর ও দিবর ইউনিয়ন সমন্বয়কারী মো: হারুনুর রশিদকে এ বিষয়টি দায়িত্ব প্রদান করেন। পরে, বিয়ের আয়োজন অনুষ্ঠানে হারুনুর রশিদ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ গ্রামের মাতব্বরদের সহায়তায় স্কুল ছাত্রী আঙ্গুরীর পিতা-মাতাকে বাল্য বিবাহের কুফল সম্পর্কে অবগত করান। এতে ভুল স্কীকার করে আঙ্গুরীর পিতা-মাতা তাঁর মেয়েকে ১৮ বছরের নিচে বিয়ে দিবেন না বলে অঙ্গীকারবদ্ধ হন ও লেখাপড়া চালিয়ে যাবেন। এ তথ্য মুঠোফোনে বরযাত্রীরা জানতে পেরে উপজেলার নজিপুর বাসস্ট্যান্ড আসলে সেখান থেকেই বিয়ে করতে এসে বউ ছাড়া ফিরে দেতে বাধ্য হন। এ বিষয়ে পত্নীতলা নির্বাহী অফিসার মো: আব্দুল মালেক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।






মন্তব্য চালু নেই