মেইন ম্যেনু

পথচারীকে বাঁচাতে গিয়ে কলারোয়ায় যাত্রীবাহি বাস দূর্ঘটনার কবলে, আহত ৪০

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় যশোর-সাতক্ষীরা মহাসড়কে মোবাইল ফোনে কথা বলা অজ্ঞাতনামা এক পথচারীকে বাঁচাতে গিয়ে যাত্রীবাহি বাস সড়ক দূর্ঘটনায় পতিত হয়েছে। এসময় ওই বাসে থাকা ৬০/৭০ যাত্রী আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে, শনিবার সকাল ১০টার দিকে কলারোয়া উপজেলার কাজিরহাট সংলগ্ন ইটভাটার সামনে।

খবর পেয়ে কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিমের নেতৃত্বে থানার এসআই সুব্রত কুমার সরদার ও এএসআই জিন্নাত হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আহত যাত্রীদের উদ্ধার করে কলারোয়া সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করেন।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, সকাল ১০টার দিকে সাতক্ষীরা থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহি বাস মিতা (সাতক্ষীরা-জ-১১-১০২) যশোরের দিকে রওনা হয়। পতিমধ্যে কাজিরহাটের ইটভাটার কাছে পৌছালে যশোরের দিক থেকে ছেড়ে আসা সাতক্ষীরাগামী সংগ্রাম পরিবহন (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৫৩৪২) সামনা সামনি ক্রসিং করার সময় ওই স্থান দিয়ে এক পথচারী মোবাইল ফোনে কথা বলছিলো। তাকে বাঁচাতে সংগ্রাম পরিবহন গাড়িটি চাপিয়ে দিলে যাত্রীবাহি বাসটির সঙ্গে সঙ্গে ধাক্কা লাগলে যাত্রীবাহি বাসটি রাস্তার পাশের একটি মেহগনি গাছে সজোরে আঘাত করে।

এতে ওই বাসে থাকা প্রায়-৬০/৭০জন যাত্রী আহত হয়। আহতদের মধ্যে কাজিরহাট কলেজের প্রভাষক শাহাদাত হোসেন, প্রভাষক আ. কাদের, আবুল হোসেন (৪৫), নিত্ত পদ ঘোষ (৪৩), ওলিউর রহমান (৫০), সালেহা বেগম (৩৫), তাপস কুমার (৩০), শান্ত দাস (২৮), আক্তারুজ্জামান (৪০)কে কলারোয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
বাকিদের বিভিন্ন ক্লিনিকে ও সাতক্ষীরা সদরে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।






মন্তব্য চালু নেই