মেইন ম্যেনু

পদ্মা থেকে অবৈধ বালু উত্তোলনের মহোৎসব

রবিউল ইসলাম শাহীন, জেলা প্রতিনিধি, পাবনা: পাবনার সুজানগরের নাজিরগঞ্জ সংলগ্ন পদ্মা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের যেন মহোৎসব চলছে। গত ১০/১৫ দিন আগে অবৈধভাবে ওই বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে উভয় পক্ষে ৮/১০জন আহত হয়।

এ ঘটনায় সুজানগর থানায় পৃথকভাবে দু’টি মামলা দায়েরের পর বেশ কয়েকদিন বালু উত্তোলন বন্ধ ছিল। কিন্তু গত ৩/৪ দিন থেকে আবারও পদ্মা নদীর নাজিরগঞ্জ ও বরখাপুর এলাকা থেকে ব্যাপকভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।

সরেজমিন জানা যায়, বৈধভাবে বালুমহাল লিজ নিয়ে পরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলন করার সরকারি বিধান রয়েছে। এ ক্ষেত্রে সকল নিয়ম-নীতি মেনে সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা প্রশাসকের নিকট থেকে লিজ নিয়ে পরবর্তীতে ভূমি মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন সাপেক্ষে বালু উত্তোলন করতে হয়।

এদিকে রাজবাড়ী জেলার প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ী দীপক কুমার কুন্ডু ও আজম আলী বিশ্বাস ওরফে মধু গং এবং সুজানগরের নাজিরগঞ্জ এলাকার কামাল খলিফা ও হারুন শেখ গং সরকারের নিয়ম নীতি উপেক্ষা করে প্রতিদিন ওই এলাকা থেকে লক্ষ লক্ষ ঘনফুট বালু উত্তোলন করে কোটি কোটি টাকা বিক্রি করছে।

এতে একদিকে সরকার লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে অপরদিকে শক্তিশালী ড্রেজার মেশিন দিয়ে যত্রতত্রভাবে বালু উত্তোলনের ফলে নাজিরগঞ্জ ফেরিঘাটসহ আশপাশের শত শত বাড়িঘর এবং বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হুমকির মুখে পড়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাকছুদুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে ঘটনা সত্য হলে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।






মন্তব্য চালু নেই