মেইন ম্যেনু

পনেরো বছরের প্রচেষ্টায় অত্যাধুনিক ড্রোন বানালো ইজরায়েল

আধুনিক অস্ত্র ও সামরিক শক্তিতে একের পর এক চমক দেওয়ায় ইজরায়েলের কাজ। তেমনি নতুন এক ড্রোন তৈরি করে নয়া চমক দিলো দেশটি। সন্ত্রাসবাদী হামলা বা দুর্গম এলাকা থেকে উদ্ধারের জন্য নয়া অত্যাধুনিক ড্রোন আনতে চলেছে ইজরায়েলের একটি কোম্পানি৷

জানা গিয়েছে, বিপদগ্রস্ত স্থান থেকে মানুষকে নিরাপদ স্থানে পৌঁছে দেবে নিয়ন্ত্রিত স্বয়ংক্রিয় যানটি৷ গত নভ্ম্বেরে মাসেই ড্রোনটির সফল পরীক্ষা শেষ করেছে ইজরায়েল। ২০২০ সালের মধ্যে বাজারে চলে আসবে ড্রোন- করমোরন্ট৷।

ড্রোনটি বানাতে প্রায় ৪০ লক্ষ ডলার খরচ করছে ইজরায়েলের এই কোম্পানি৷ শোনা গিয়েছে ড্রোনটি নির্মাণে গত পনেরো বছর ধরে নিরন্তর কাজ করেছে কোম্পানিটি৷ প্রতি ঘন্টায় একশো মাইল পথ পাড়ি দিতে সক্ষম হবে ড্রোনটি৷ কোম্পানির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বর্তমানে বড় বাণিজ্যে পরিণত হচ্ছে ড্রোন ব্যবসা৷ই-কমার্স সাইট অ্যামাজনও ড্রোনের মাধ্যমে আকাশপথে পণ্য পৌঁছে দিচ্ছে৷

বিশেষজ্ঞারা জানিয়েছেন, এই ধরনের ড্রোন বাজারে এলে, মানুষের যাতায়াতের ক্ষেত্রে একটা বিপ্লব ঘটবে। ইজরায়েলি কোম্পানির এই সাফল্য একটা মাইলফলক হয়ে থাকবে বলেও জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। প্রথম দিকে সামরিক কাজে বা উদ্ধার কাজে ব্যবহার হলেও, পরে অসামরিক কাজেও এই ড্রোনগুলির ব্যবহারও শুরু যাবে।






মন্তব্য চালু নেই