মেইন ম্যেনু

পবিত্র মসজিদের পাশের বাড়িতে উঠছে প্রেসিডেন্ট ওবামা পরিবার

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা হোয়াইট হাউজ ছেড়ে যাওয়ার পর পরিবার নিয়ে কোথায় উঠবেন তা নিয়ে জল্পনাকল্পনা চলছে। তবে এ নিয়ে একটি চমকপ্রদ খবর প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের রক্ষণশীল ও জনপ্রিয় সংবাদভিত্তিক ওয়েবসাইট দা ডেইলি কলার।

এতে বলা হয়, হোয়াইট হাউজ ছাড়ার পর ওবামা ও তার পরিবারের সদস্যরা (ফার্স্ট ফ্যামিলি) যে বিশাল বহু কোটি টাকা দামের অট্টালিকায় উঠবেন তা ওয়াশিংটনের একটি সুবিশাল মসজিদ থেকে মাত্র ১০৯৬ ফুট দূরে।

দা ইসলামিক সেন্টার অফ ওয়াশিংটন নামের এই মসজিদটি পশ্চিম গোলার্ধের অন্যতম বড় মসজিদ। এটি ওয়াশিংটন ডিসির কাছে ক্যালোরোমার নিকটে অবস্থিত।

মুসলিম বাবার সন্তান ওবামাকে এখনো মুসলিম বলে অনেক রক্ষণশীল আমেরিকান মনে করেন। তবে ওবামা বলেছেন, তিনি বহু আগেই খ্রিষ্ট ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

ওবামার ওই প্রাসাদোপম বাড়িটি ৮২০০ ফুটের। এতে আটটি বেডরুম এবং নয়টি বাথরুম রয়েছে। এখানে দুটি গাড়ির গ্যারেজ রয়েছে যেখানে দশটির মত গাড়ি রাখা যাবে।

১৯২৮ সালে নির্মিত বাড়িটি ২০১৪ সালে বিক্রি হয় ৫২ লাখ ৯৫ হাজার ডলার বা প্রায় ৪০ কোটি টাকায়।

এদিকে নিউইয়র্ক টাইমসও ওবামার নতুন বাড়িটি সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যাতে বলা হয়েছে, বর্তমানে বাড়িটির দাম ৬০ লাখ ডলার বা প্রায় ৪৮ কোটি টাকা এবং এর মাসিক বাড়া ২২,০০০ ডলার বা প্রায় ১৭ লাখ টাকা। বাড়িটির মালিক সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের সাবেক প্রেস সেক্রেটারি জো লকহার্ট।

ডেইলি কলারের প্রতিবেদনে দা ইসলামিক সেন্টার অফ ওয়াশিংটন সম্পর্কে বলা হয়, এখানে জুমাসহ দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের ব্যবস্থা রয়েছে। সুউচ্চ মিনার আর আরবি বর্ণমালার পাশাপাশি এখানে যেসব দেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম সেসব দেশের পতাকা টানানো রয়েছে। এর অদূরেই রয়েছে ওমানের দূতাবাসে এবং ইরানের সাবেক দূতাবাস।

এখান থেকে ইসলামের জ্ঞান প্রসারে কোরআন ও ইসলামি সাহিত্য বিতরণ করা হয়। এছাড়া দরিদ্র পরিবারকে সহায়তা, বিয়ে আয়োজন, ভাষা বিষয়ক কোর্স, পরামর্শ প্রদান এবং ইসলামি বিষয়ে গবেষণায় ব্যাপৃত রয়েছে মসজিদটি।






মন্তব্য চালু নেই