মেইন ম্যেনু

পরকীয়ার এগিয়ে নারীরা

বিবাহিত মধ্যবয়স্কা নারীদের শারীরিক ও মানসিক চাহিদা একটু বেশি থাকে। এ বয়সটায় এসে প্রিয় পুরুষের কাছে ধরে রাখতে চান নিজের পূর্ণ আকর্ষণ। কিন্তু স্বামীর কাছ থেকে মনোযোগ না পেরে পরকীয়া প্রেমে ঝুঁকছেন তারা।

গবেষকরা জানাচ্ছেন, পরকীয়া প্রেমে বিবাহিত নারীরা পুরুষদের চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন এক গবেষণায় এমনই এক চাঞ্চল্যকর তথ্য জানা গেছে। এসব নারীরা স্বামীর থেকে পর্যাপ্ত সময় বা পূর্ণ যৌনতৃপ্তি না পেলে বিবাহ বিচ্ছেদের দিকে না গিয়ে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন।

ইংল্যান্ডের ইউনিভার্সিটি অফ উইনচেস্টারের পুরুষত্ব ও সেক্স স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক এরিক অ্যান্ডারসন জানিয়েছেন, বিয়ে করে পরিতৃপ্ত ও শয্যায় পূর্ণতৃপ্তি পাওয়া দুইটা সম্পূর্ণ আলাদা বিষয়। তার গবেষণা বলছে, ৩০-৪৫ বছরের নারীরা আরও রোমান্টিক ও উত্তেজনাময় যৌনজীবনের জন্যই পরকীয়ায় জড়ান।

অ্যান্ডারসন ৩০ থেকে ৪৫ বছরের ১০০ জনেরও বেশি বিবাহিত নারীদের ওপর গবেষণা চালিয়েছেন। অ্যাশলে ম্যাডিসন ডট কম নামে একটি পরকীয়া প্রেম সংক্রান্ত ওয়েবসাইটে এই নারীদের কথোপকথন রেকর্ড করা হয়েছিল। তারপরেই এই সিদ্ধান্তে আসেন গবেষকরা।

গবেষণায় ৬৫ শতাংশেরও বেশি নারী পরকীয়ায় জড়িয়েছেন যৌন অতৃপ্তির কারণে। তাদের চাহিদা আরও উত্তেজনাময় ও আবেগিক শারীরিক সম্পর্ক। পাশাপাশি তারা এও স্বীকার করেছেন, তাদের পক্ষে নতুন করে বিয়ে করা সম্ভব নয়।

অ্যান্ডারসন বলছেন, বিয়ের কয়েক বছর পর স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে যৌন সম্পর্ক ফিকে হতে শুরু করে। কিন্তু নারীরা ফের বিয়ে করতে চান না। একই সঙ্গে তিনি এটাও জানিয়েছেন, এই গবেষণার মূল নির্যাস কখনোই বিবাহিত নারীদের অসম্মান করা নয়। বরং কি কারণে সম্পর্ক ভাঙছে বা নারীরা পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ছে তার একটি বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা দেওয়া।






মন্তব্য চালু নেই