মেইন ম্যেনু

পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় স্বামীর পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় মোসা. আসমা আক্তার (২১) নামে এক গৃহবধূকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার সকালে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, শনিবার বিকালের দিকে উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের পাখিমারা বাজার সংলগ্ন এলাকায় ও ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে রাতেই স্বামী কামরুজ্জামান রাহত (২৫) কে আটক করে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, প্রায় তিন বছর আগে পারিবারিকভাবে উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের রেজাউল করিম মাস্টারের ছেলে রাহাতের সঙ্গে পাশ্ববর্তী উপজেলা তালতলীর কড়াইবাড়িয়া ইউনিয়নের হেলেঞ্চাবাড়িয়া গ্রামের আবদুল খালেকের মেয়ে মোসা. আসমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের দাম্পত্য কলহ চলছিল। ঘটনার দিন রাহাত ওই গৃহবধূকে গলা টিপে (শ্বাসরোধ করে) হত্যার পর তার মরদেহ ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচারণা চালাতে চেয়েছিল। তবে, আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রাহাত পুলিশের কাছে হত্যার দায় স্বীকার করেছে।

গৃহবধূর বাবা আবদুল খালেক জানান, ‘কয়দিন আগেও আমারে ফোন করে জানায় আব্বা ও একটা মাইয়ার সঙ্গে সম্পর্ক করে। প্রায়ই আমারে মারধর করে। আমারে আপনি নিয়া যান।’

কলাপাড়া থানার এস আই নূরুল ইসলাম বাদল জানান, আমরা সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করি। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছি। তবে এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই