মেইন ম্যেনু

পরিবারের ১৪ সদস্যকে খুনের পর যুবকের আত্মহত্যা

ভারতে নিজের স্ত্রীসহ ১৪ জনকে গলা কেটে হত্যা করেছে এক যুবক। নিহতদের মধ্যে সাত শিশু ও ছয় নারী রয়েছে। রোববার সকালে মহারাষ্ট্রের কাসাওয়াদাভালি গ্রাম থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, হাসান আনোয়ার ওয়ারেকার (৩৫) নামের ওই ব্যক্তি তার পরিবারের ছয় নারী, সাত শিশু ও এক পুরুষকে ঘুমন্ত অবস্থায় গলা কেটে হত্যা করেছে। এ ঘটনার পর আনোয়ার আত্মহত্যা করেছে। ওই পরিবারের স্বজনরা রোববার সকালে পুলিশে খবর দিলে ওই বাসা থেকে ১৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় আনোয়ারের হামলার শিকার এক নারীকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। গুরুতর অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

প্রাথমিক তদন্ত শেষে পুলিশ জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে নিজের তিন বোন, সাত শিশু, বাবা-মা, স্ত্রী ও এক ব্যক্তিকে রাতে খাবারের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে দিয়েছিল আনোয়ার। এরা সবাই পারিবারিক একটি উৎসবে যোগ দিতে একত্রিত হয়েছিল। রাতেই তাদের হত্যা করেছিল আনোয়ার।

কোকান জেলা থানে শহরের যুগ্ম পুলিশ কমিশনার আশুতোষ দুমরে বলেন, ‘পরিবারের ১৪ সদস্যকে হত্যার পর ওই ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছে। তবে হত্যার কারণ সম্পর্কে এখনো কোনো কিছু জানা যায়নি।`






মন্তব্য চালু নেই