মেইন ম্যেনু

পরীক্ষা দেয়ার স্বপ্ন দেখছে সেই অনিক-হৃদয়

গত বছরের ৫ জানুয়ারি বোমার আঘাতে এসএসসি পরীক্ষার্থী মিনহাজ উদ্দিন অনিক ও শাহরিয়ার হৃদয়ের আহত হয়েছিল। দীর্ঘ চিকিৎসার পর আবার প্রায় দৃষ্টিহারানো চোখে তারা আবার পরীক্ষা দেয়ার স্বপ্ন দেখছে।

এদিকে, অনিক ও হৃদয়ের ওপর ককটেল হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে ফেনীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকরা।

এক বছর পিছিয়ে যাওয়া অনিক-হৃদয় পুনরায় পরীক্ষা দেয়ার স্বপ্ন দেখছে। মঙ্গলবার সকালে ফেনী সরকারি পাইলট হাইস্কুলের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে এ বছর এসএসসি পরীক্ষা দেয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তারা। বিজ্ঞান বিভাগের এ দুই ছাত্রের গত বছর এসএসসি পরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল।

মানববন্ধনে ফেনী সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা হোসনে আরা বেগমের সভাপতিত্বে জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, অভিভাবকরা বক্তব্য দেন। এতে সংহতি প্রকাশ করেন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, ও বিভিন্ন বুদ্ধিজীবী সংগঠনের নেতারা। বক্তারা সকলেই রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে সহিংস রাজনীতি বন্ধ ও এসএসসি পরীক্ষার্থী অনিক ও হৃদয়ের ওপর ককটেল হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি করেন।

উল্লেখ্য, গত ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের ‘গণতন্ত্র রক্ষা দিবস’ উপলক্ষে বিকেল সাড়ে ৪টায় ফেনীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জনসভা চলছিল। এসময় জনসভার পাশ দিয়ে প্রাইভেট পড়ে বাসায় যাওয়ার সময় বোমার আঘাতে অনিক ও হৃদয় গুরুতর আহত হন। এই দু’ছাত্রের চিকিৎসার ভার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিয়েছিলেন। দেশের বাইরে তাদের চোখের চিকিৎসা করানো হলেও দৃষ্টি শক্তি হারানোর আশঙ্কা থেকে রক্ষা পান এই দুই ছাত্র।






মন্তব্য চালু নেই