মেইন ম্যেনু

পল্লীবিদ্যুতের ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ান গ্রেফতার

নওগাঁর রাণীনগরে বিদ্যুতের সংযোগ দেওয়ার নামে গ্রামবাসীর কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করার অভিযোগে এনামুল হক (৩৫) নামে রাণীনগর পল্লীবিদ্যুৎ সাব-জোনাল অফিসের ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ান গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রানীনগর উপজেলার কালিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মোফাজ্জল হোসেন বাচ্চু বাদি হয়ে থানায় চাঁদাবাজির মামলা করলে পুলিশ গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলা সদর থেকে তাকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

গ্রেফতারকৃত এনামুল উপজেলার ছয়বাড়িয়া গ্রামের আকরাম হোসেনের ছেলে। পুলিশ জানায় উপজেলার মধুপুর গ্রামের বাসিন্দা কালীগ্রাম ইউপি সদস্য মোফাজ্জল হোসেন গ্রামের বেশকিছু বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ নেওয়ার জন্য স্থানীয় পল্লীবিদ্যুৎ সমিতিতে যোগাযোগ করে। কর্তৃপক্ষ পর্যায়ক্রমে ওই গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার আশ্বাস দিলে চাঁদা হুমকিদাতা এনামুল হক গ্রামের ওইসব বাড়িতে বিদ্যুত সংযোগ নিতে হলে তাকে ১০ লাখ টাকা দিতে হবে বলে মোফাজ্জলের কাছে চাদাঁ দাবি করে।

বিশাল অংকের টাকা পরিশোধে অপারগতা প্রকাশ করে টাকা ছাড়াই মোফাজ্জল বিদ্যুত সংযোগ নেওয়ার জন্য চেষ্ঠা তদবির চালিয়ে আসছিল। গত সোমবার সন্ধ্যায় রানীনগর উপজেলা সদরের বরেন্দ্র বহুমখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ অফিসের সামনে এনামুল পুনরায় মোফাজ্জলের নিকট চাঁদা দাবি করে এবং তাকে চাঁদা না দিলে মুধপুর গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে দিবনা বলে হুমকি প্রদান করে। মোফাজ্জল ওইদিন রাতেই তাকে আসামী করে থানায় চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

এব্যাপারে রাণীনগর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির সাব-জোনাল অফিসের এজিএম মোতাসছিম বিল্লা জানান, আমার অফিসের তালিকা ভূক্ত ভিলেজ ইলেকট্রিশিয়ান। সে মুধপুর গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার নামে গ্রাহকদের কাছ থেকে চাঁদাদাবি করেছে আমি শুনেছি। তবে আমার দপ্তরে তার বিরুদ্ধে কেউ অভিযোগ করেনি। কোন ধরণের অভিযোগ পেলেই অবশ্যই তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই