মেইন ম্যেনু

পাকিস্তানের প্রতিক্রিয়া ন্যক্কারজনক : দীপু মণি

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দীপু মণি বলেছেন, ‘পাকিস্তান যুদ্ধাপরাধীদের রায়ে প্রতিক্রিয়া দেখাবে এটা একটা স্বাভাবিক বিষয়। এর আগেও তারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় কার্যকরের সময় প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছিল। এ ধরনের প্রতিক্রিয়া ন্যক্কারজনক।’

রোববার দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে গঠনতন্ত্র উপ-কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

দীপু মণি বলেন, ‘পাকিস্তানের এমন প্রতিক্রিয়ার মাধ্যমে আরো বেশি স্পষ্ট হয় যে এরা যুদ্ধাপরাধ করেছিল। তারা পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর পক্ষে বাংলাদেশি নিরীহ জনগণের বিরুদ্ধে যে যুদ্ধাপরাধ করেছিল তা আদালতে তো প্রমাণিত হয়েছে। এখন পাকিস্তানিদের প্রতিক্রিয়ার মাধ্যমে তা আবারো প্রমাণিত হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ বরাবরই বলে আসছে যুদ্ধাপরাধীর বিচার সম্পূর্ণ বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এটি বাংলাদেশের গণমানুষের দাবি। ইতিহাসের উপর নির্ভর করেই আন্তর্জাতিকমান বজায় রেখে আইন অনুযায়ী স্বচ্ছতার সাথে এ বিচার করা হচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘দীর্ঘদিন পরে পর্যায়ক্রমে যুদ্ধাপরাধীদের রায় কার্যকর করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করার জন্য সরকার এবং বিচার প্রক্রিয়ার সাথে যারা জড়িত তাদের সকলকেই আমরা অভিনন্দন জানাই।’

আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধী যাদের ফাঁসি দেওয়া হচ্ছে তাদের এখনো নিজেদের লোক মনে করে পাকিস্তান। তাই নিজেদের লোক সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া দেখায় দেশটি।’

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন- আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক কর্নেল (অব.) ফারুক খান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী প্রমুখ।

মীর কাসেম আলীর ফাঁসির রায় কার্যকরের পর পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ রায় ত্রুটিপূর্ণ উল্লেখ করা হয়। দেশটি মীর কাসেম আলীর ফাঁসি কার্যকরে গভীর মর্মাহত এবং কাসেম আলীর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানায়।






মন্তব্য চালু নেই