মেইন ম্যেনু

পাক ক্রিকেটার সরফরাজের স্ত্রী ধোনি-সাক্ষীকে নিয়ে কী বলছেন?

দুই দেশেই ক্রিকেট প্রথম পছন্দ। প্রধান খেলাও বটে। ক্রিকেট নিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা যেমন রয়েছে, তেমনই রয়েছে পারস্পরিক শ্রদ্ধা। ক্রিকেট মাঠে দুই দেশের লড়াই উপভোগ্য।

ভারত ও পাকিস্তান মুখোমুখি হলেই ক্রিকেটভক্তদের বাড়তি অ্যাড্রিনালিন ঝরে। খেলার মাঠেই ক্রিকেটাররা একে অপরের শত্রু হলেও মাঠের বাইরে কিন্তু একে অপরের বন্ধু। ক্রিকেটভক্তরা মাঝে মাঝে বাড়াবাড়ি করে ফেলেন ঠিকই। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ভারতীয় ক্রিকেটারদের ছবি বিকৃত করে তা ভাইরাল করা হয়। এমন নজিরও রয়েছে। এটা অবশ্য সার্বিক ছবি নয়। পাকিস্তানের মাটিতে বিরাট কোহলির ভক্তও রয়েছেন। কোহলির ব্যাট কথা বলতে শুরু করলে, তিনিও আনন্দিত হন।

পাক ক্রিকেটাররাও ভারতীয় ক্রিকেটারদের পছন্দ করেন। উলটোটাও ঠিক। সচিন তেন্ডুলকর যখন খেলতেন, সেই সময়ে সইদ আনোয়ার বলতেন, ‘‘সচিন দে দে, সিয়াচেন লে লে।’’ ইদানীংকালে পাক ক্রিকেটারদের পছন্দের মানুষ মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। পাক ক্রিকেটার সরফরাজ আহমেদের স্ত্রী সৈয়দা খুশবখত প্রশংসা করেছেন ধোনি ও সাক্ষীর। যে কোনও সফল মানুষের পিছনেই একজন নারীর অবদান থাকে। সরফরাজের স্ত্রী মনে করেন, ধোনির সাফল্যের পিছনে রয়েছে সাক্ষীর বড় অবদান। সৈয়দা বলেছেন, ‘‘ধোনির স্ত্রী সাক্ষী পরিচিত মুখ। আমি ওকে পছন্দই করি। খেলা চলাকালীন সাক্ষীর সঙ্গে দেখা হলে কী বলব জানি না। হয়তো আমার কথাই বন্ধ হয়ে যাবে।’’

সাক্ষী সম্পর্কে যখন সরফরাজের স্ত্রী ঢালাও সার্টিফিকেট দিচ্ছেন, তখন ধোনি সম্পর্কে তিনি বলছেন, ‘‘ধোনি লিভিং লিজেন্ড। ভারতকে প্রায় সব ট্রফিই দিয়েছে ধোনি। আমার স্বামী সরফরাজ ধোনির দেখে অনেক কিছু শিখেছে।’’






মন্তব্য চালু নেই