মেইন ম্যেনু

পানির জন্য একাধিক বিয়ে!!

ভারতের মহারাষ্ট্রের পানির সমস্যা দিনে দিনে তীব্র আকার ধারণ করছে। অপরিকল্পিত বাধ এবং পানির স্তর নীচে নেমে যাওয়ার কারণে মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন গ্রামে দেখা দিচ্ছে তীব্র পানির সঙ্কট। মাঝে মাঝে এই সঙ্কট এমন ভয়াবহ আকার ধারণ করে যে, খাওয়ার জন্য সামান্য পানি খুঁজে পাওয়া যায় না গ্রামগুলোতে। আর পানি আনার জন্য যতদূর পথ যেতে হয় পরিবারের নারী সদস্যটি অসুস্থ হয়ে পড়লে সেই পরিবারে তখন পানির অভাব আরো তীব্র আকার ধারণ করে। আর এই সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য পরিবারের পুরুষ সদস্যটি বেছে নিয়েছে এক অভিনব কায়দা।

মহারাষ্ট্রের এমন অনেক গ্রাম আছে যেখানে একটি পুরুষ একাধিকবার বিয়ে করে। কারণ হিসেবে তারা দাড় করায় দূর থেকে পানি আনতে প্রথম স্ত্রীর কষ্ট হবে বলে তার দ্বিতীয় দফায় বিয়ে করা। এভাবে পানি আনার জন্য গ্রামের পুরুষেরা একের পর এক বিয়ে করে চলেছে। আর তাদের স্বীকার হচ্ছে গ্রামের তরুণী নারীরা। যাদের পরিবার দরিদ্রতার অভাবে মেয়েদের তুলে দিচ্ছে একাধিকবার বিয়ে করা পুরুষের হাতে। কিন্তু এখানেই শেষ নয় একাধিকবার বিয়ে পানির সমস্যা উত্তরণের কতটুকু সমাধান তা এখন পর্যন্ত কারো জানা নেই। এদিকে দিনের দিনের পর দিন গ্রামগুলোতে জনসংখ্যা যেমন বাড়ছে ঠিক তেমনভাবেই পানির স্তরও ক্রমশ নীচে নেমে যাচ্ছে।

এমন অবস্থায় প্রশাসন কোথায় এমন প্রশ্ন করলে বলতে হবে প্রশাসনের এ ব্যাপারে কোন নজর নেই বললেই চলে। শীত গ্রীষ্ম এই দুই ঋতুতেই পানির অভাব এতো তীব্র আকার ধারণ করে যে, প্রশাসনের পক্ষ থেকেও হাজার হাজার গ্রামবাসীর জন্য পানি সরবরাহ করা সহজ কথা নয়। তবে প্রশাসন উদ্যোগী হলে পানি আনার জন্য বিয়ে করার এই প্রথাকে বন্ধ করা সম্ভব বলে মনে করা যায়।পানি

মহারাষ্ট্রের পানির সমস্যার জন্য একাধিকবার বিয়ে করার প্রবণতা বাড়ছে শুধু তাই নয়, এতে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে গ্রামের কৃষক পরিবারগুলো। পানির অভাবে অনেক ফসলী জমি নষ্ট হয়ে যাওয়ায় কৃষকের মৃত্যুর খবরও অনেক শোনা গেছে। আর এর জন্য যদি প্রশাসনের পক্ষ থেকে দ্রুত কোন পদক্ষেপ নেয়া না হয় তাহলে ভবিষ্যতে মহারাষ্ট্রের অবস্থা আরো হুমকির মুখে পড়বে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা।






মন্তব্য চালু নেই