মেইন ম্যেনু

পানির স্তর নিচে নামায় দুর্ঘটনার আশংকা বিশেষজ্ঞদের

রাজধানীর পানির স্তর অপেক্ষাকৃত অনেক নিচে নেমে যাওয়ার কারণে বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন বিশেষজ্ঞদেরা। তারা বলছেন, দেশের কল-কারখানার মধ্যে যে ৩০ শতাংশ নিয়মের আওতায় আছে তা মূলত প্রশাসনকে দেখানোর জন্যই। যেটিকে একটি বড় ধরণের হুমকি হিসেবেই মনে করেন তারা।

মঙ্গলবার ‘বিশ্ব পানি দিবস ২০১৬ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা পানি ও পরিবেশ বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এ আশংকা প্রকাশ করেন বক্তারা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. সিরাজুল হকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘অটার রিসোর্স ম্যানেজম্যান্ট’ বিভাগের শিক্ষক ড. তানভির আহম্মদ, মৃত্তিকা, পানি পরিবেশ বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক মো. দিদার-উল আলম, অধ্যাপক সহিদ আখতার হুসাইন খান প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ভবিষ্যতে বিশ্বব্যাপী পানি সংকটের যে আশংকা করা হচ্ছে তা নিয়ে এখনই ভাবা উচিত। কয়েক বছর পর বিশুদ্ধ পানি পাওয়াটা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে।

তারা বলেন, ঢাকার সায়দাবাদের ধলপুরে যেখানে ওয়াসা স্থাপন করা হয়েছে এটা অনেক পলিয়েশন একটা জায়গা। এখানে আমাদের পরিকল্পনায় অনেক ভুল আছে। এছাড়াও, সেখানকার জায়গাটা তুলনামূলক ভাবে অনেক নিচু জায়গা। এর ফলে সেখানে পানি শোধন করতে গেলে পানির সাথে অনেক বালু চলে আসে। এতে করে পানি শোধনা কাজের অনেক সমস্যা হয়। ফলে ঢাকার সাধারণ মানুষের পানি সমস্যা বেড়েই চলছে। তারা পাচ্ছে না বিশুদ্ধ পানি।

আলোচনা সভায় আলোচকবৃন্দ দেশের পানির ব্যবস্থাপনা আরো উন্নত করার জন্য সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেন।






মন্তব্য চালু নেই