মেইন ম্যেনু

পাবনার চাটমোহরে শোভা বর্ধনের নামে বৃক্ষ নিধন

পাবনার চাটমোহর উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসে শোভা বর্ধনের নামে বৃক্ষ নিধনের মহোৎসব শুরু হয়েছে। প্রতিদিনই সরকারি গাছ ও গাছের ডালপালা কেটে সাবাড় করা হচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে বেগম শেহেলী লায়লা যোগদান করার পর পরই উপজেলা পরিষদের পুকুরসহ ক্যাম্পাসের শোভা বর্ধনের প্রকল্প হাতে নেন। যার অংশ হিসেবে উপজেলা পরিষদ চত্বরের পুকুরটির সৌন্দর্য বাড়ানোর কাজ করা হয়।

নামকরণ করা হয় ‘নারিকেল পুকুর’। এ জন্য পুকুর পাড়ের ছোট ছোট গাছ ও বড় গাছের ডালপালা কেটে ফেলা হয়। উপজেলা পরিষদের দায়িত্বপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নুরুল করিম খান আরজ এ বিষয়ে প্রতিবাদও করেন। ইউএনও সবকিছু জায়েজ করতে পাবনা জেলা প্রশাসককে দিয়ে পুকুরপাড়ে নারিকেল গাছ রোপন করান।

একাধিক সূত্র জানায়, পুকুরটি নাকি ইউএনও এক পিয়ন ও নাইটগার্ডকে মাছ চাষের জন্য নামকাওয়াস্তে ইজারাও দিয়েছেন। এতে সরকার মোটা টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এদিকে গত ১৩ নভেম্বর শুক্রবার ও ১৪ নভেম্বর শনিবার ছুটির দু’দিনে উপজেলা ক্যাম্পাসের বিভিন্ন গাছের ডাল কেটে ফেলা হয়েছে। সরকারি গাছের ডাল কর্তনের যেন মহোৎসব চলছে।

ইউএনও বেগম শেহেলী লায়লা চাটমোহরে আসার পর বিলকুড়ালিয়ার ভূমিহীনদের এক সমাবেশে বলেছিলেন, যে ক’দিন থাকবেন, তিনি নাকি বাঘ হয়েই থাকবেন।’ গাছ কাটা তারই নমুনা। কথা ও কাজের মিল ব্যাপক। তাঁর কথায় চাটমোহরবাসী আশান্বিত হলেও প্রভাবশালীদের দেওয়া বিশাল বিশাল সুঁতি বাঁধের এক চুলও নড়াতে পারেননি। যার খেসারত দিতে হচ্ছে কৃষককূলকে। সময়মতো পানি নিষ্কাশন না হওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে রবিশস্য আবাদ। তাছাড়া চলতি জেএসসি ও সমমান পরীক্ষায় নকলবাজি ও শিক্ষকদের সহায়তায় নকল চলছে। পরীক্ষা কেন্দ্রে নাকি সাংবাদিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

উপজেলা পরিষদ চত্বরের শোভাবর্ধনে লাখ লাখ টাকা ব্যয় করা হলেও জনদূর্ভোগ কমাতে কোন উদ্যোগ চোখে পড়েনি। সরকারি গাছ কেটে সরকারি জায়গার সৌন্দর্য বাড়ানো হচ্ছে।

এ ব্যাপারে গত রবিবার সন্ধ্যায় তাঁর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে জানা যায়, তিনি তখন অফিসার্স ক্লাবে নবান্নের পিঠা উৎসবে ব্যস্ত ছিলেন।

সেখানে বসেছিল গানের হাট-বাজার। উপজেলা চেয়ারম্যান ( চলতি দায়িত্ব) নুরুল করিম খান আরজ জানান, বিষয়টি তিনি ভিজিট করে কাল দেখবেন। কোন সিদ্ধান্ত ছাড়া সরকারি গাছ বা ডাল কাটা যায় না। তিনি সাংবাদিকদের সত্য তুলে ধরার আহবান জানান।






মন্তব্য চালু নেই