মেইন ম্যেনু

পাবনায় আ’লীগ প্রার্থী বাছাইয়ের তৃণমূল নির্বাচন স্থগিত

রবিউল ইসলাম শাহীন, জেলা প্রতিনিধি, পাবনা: পাবনা সদর উপজেলার মালিগাছা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী নির্বাচনে তৃণমূল কর্মীদের ভোটাভোটির সময় বোমা বিস্ফোরণ ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে কোনো হতাহরে ঘটনা না ঘটলেও আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ে তৃণমূল কর্মীদের ভোটাভোটির স্থগিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) দুপুর দেড়টার দিকে সদর উপজেলার মালিগাছা ইউনিয়নের টেবুনিয়া বাজারে আওয়ামী লীগ অফিসে প্রার্থী বাছাইয়ের আগে এ সংঘর্ষ হয়।

টেবুনিয়া এক তৃণমূলকর্মী জানান, সদর উপজেলার মালিগাছা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী নির্ধারনের জন্য তৃণমূল নেতাকর্মীদের দুপুরে ভোট হওয়ার কথা ছিল। এদিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে স্থানীয় বিএনপি নেতা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান উম্মত আলী আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়ার জন্য সভাস্থলে লোকজন নিয়ে উপস্থিত হন। মাইকে নেতাদের বক্তব্য চলছিল।

এমন সময় সভাস্থলে অতর্কিত ৪/৫টি বোমা বিস্ফোরণ ও ৮/১০ রাউন্ড বন্দুকের গুলি করে দুর্বৃত্তরা। বোমা বিস্ফোরণ ও বন্দুকের গুলির শব্দে নেতাকর্মী ভয়ে দিকবিদিক ছোটাছুটি করতে থাকে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি রেজাউল রহিম লাল, পাবনা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সোহেল হাসান শাহিন, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ রাসেল আলী মাসুদ, যুগ্ম সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ রাসেল আলী মাসুদ বাংলানিউজকে জানান, তৃণমূলের ভোট নিয়ে সামান্য ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। আমরা আজকের নির্বাচন বাতিল করে পরবর্তীতে আলোচনা করে দলীয় সিদ্ধান্ত জানাবো।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল হাসান জানান, টেবুনিয়ায় আওয়ামী লীগের তৃণমূলের ভোটে ঝামেলা হয়েছে শুনে পুলিশ গিয়ে পরিস্থতি স্বাভাবিক করেছে।






মন্তব্য চালু নেই