মেইন ম্যেনু

পাবনায় কলেজের হিন্দু ছাত্রীকে অস্ত্রের মুখে গণধর্ষণ

পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের এক হিন্দু ছাত্রীকে (২১) একদল দূর্বৃত্ত অস্ত্রের মুখে গণধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটে রোববার রাতে জেলার সাঁথিয়া উপজেলার পুন্ডুড়িয়া গ্রামে।

সোমবার সকালে ধর্ষিতার পরিবার থানায় মামলা দায়েরের পর ঐ মেয়েসহ পুরো হিন্দু পরিবার ধর্ষকদলের অব্যাহত হুমকি ধামকিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে। সোমবার দুপুরে ধর্ষিতার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোববার রাত আটটার দিকে বাড়ী থেকে অস্ত্রের মুখে একদল দূর্বৃত্ত জোরপূর্বক ওই ছাত্রীকে তুলে নিয়ে যায়। পরে দূর্বৃত্তরা বাড়ির পাশে একটি খালের মধ্যে নিয়ে গিয়ে তাকে পালাক্রমে গণধর্ষন করে।

ওই খালের পাশেই জনৈক বেরেন্দ্র মোহনের বাড়িতে হড়িবাসরের লোকজন ওই স্থান দিয়ে যাওয়ার সময়ে ধর্ষিতার চিৎকার ও কান্নার আওয়াজ পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুঁটে যায়। লোকজনের উপস্থিতি টের পেয়ে ধর্ষকের দল ধর্ষিতাকে ফেলে রেখে ঘটনাস্থল থেকে সটকে পড়ে। খবর পেয়ে ধর্ষিতার আত্মীয়স্বজনরা সোমবার সকালে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে মেয়েটিকে বাড়ি নিয়ে যায়।

সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ব্যাপারে ধর্ষিতার পরিবারের পক্ষ থেকে নামীয়সহ অজ্ঞাতদের আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। তবে এখনও আসামী ধরা পড়েনি। পুলিশ ধর্ষকদলকে ধরতে অভিযানে রয়েছে। ওসি নাসির উদ্দিন বলেন, আসামী যত প্রভাবশালীই হোক। উপযুক্ত শাস্তি তারা পাবে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে ধর্ষিতার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই