মেইন ম্যেনু

পাবনায় দেড় হাজার হেক্টর বোরো ধানের জমি অনাবাদী

রবিউল ইসলাম শাহীন, জেলা প্রতিনিধি, পাবনা: সেচ, সার, কীটনাশক, লেবার খচর বৃদ্ধি পাওয়ায় পাবনায় এবার প্রায় দেড় হাজার হেক্টর বোরো ধানের জমি অনাবাদী রয়েছে। চাষিরা বলছেন, উৎপাদন খরচের তুলায় বাজারে ধানের দাম কম হওয়ায় তারা বোরো চাষে আগ্রহী হচ্ছে না।

গত বছরেও পাবনার এসব জমিতে চাষ হয়েছে বোরো ধান। বাম্পার ফলনও পেয়েছেন তারা। কিন্তু এবার তা ভিন্ন। চলতি বোরো মৌসুমে এসব জমিতে ধান চাষ করছেন না কৃষক। যে কারণে পতিত রয়েছে জমিগুলো। কৃষকদের অভিযোগ, একদিকে তেলের দাম বৃদ্ধিতে সেচ ব্যায়, কীটনাশক, সার, লেবারসহ গত মৌসুমের চেয়ে এবার বোরো চাষে উৎপাদন ব্যায় বেড়েছে দ্বিগুন। আর বাজারে ধানের দাম না থাকায় কৃষকদের লোকসানে পড়তে হয় প্রতি বছর। তাই তারা এবার ধান চাষে আগ্রহী হচ্ছে না।

সেচকল মালিকরা বলছেন, বোরো চাষের জমিতে অধিক পরিমাণে পানির প্রয়োজন হয়। কিন্তু ডিজেল ও বিদ্যুতের দাম কয়েকগুন বেড়ে যাওয়ায় তাদেরও লোকশানে পড়তে হচ্ছে এ কারণে জেলার অনেক স্থানে সেচ পাম্প বন্ধ রাখতে হয়েছে।

কৃষি বিভাগ জানায়, চলতি বোরো মৌসুমে পাবনা জেলার নয়টি উপজেলায় ৫৮ হাজার ১৫৪ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে। ইতোমধ্যে ১৮ হাজার ৫৭০ হেক্টর জমিতে ধান রোপন সম্পন্ন হয়েছে।

পাবনা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পিরচালক বিভূতি ভূষন সরকার বলেন, গত বছরের তুলায় এবার প্রায় দেড় হাজার হেক্টর জমিতে বোরো চাষ কম হলেও কোন জমি অনাবাদী থাকবে না। তবে কৃষকদের দাবী, ধান আবাদ করে ন্যার্য মূল্য পায় এমনটাই দাবী জানিয়েছেন তারা।






মন্তব্য চালু নেই