মেইন ম্যেনু

পাবনায় স্ত্রী, সন্তান, জামাতার মারধরে বৃদ্ধ নিহতের অভিযোগ

রবিউল ইসলাম শাহীন, জেলা প্রতিনিধি পাবনা : পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে ও জামাতার মারধরে তোরাব আলী সরদার (৬৫) নামের এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে তোরাব আলীকে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া যায়। আজ শনিবার ভোরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।

তোরাব আলীর বাড়ি ভাঙ্গুড়ার মণ্ডুতোষ ইউনিয়নের বোয়ালমারী গ্রামে। তাঁর মৃত্যুর ঘটনায় স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে ও জামাতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত চারজন হলেন তোরাব আলীর স্ত্রী সোহাগী খাতুন (৪৫), ছেলে সাদ্দাম হোসেন (২৫), মেয়ে সাবিনা খাতুন (২২) ও জামাতা মনিরুল ইসলাম (২৫)।

পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দা সূত্রে জানা যায়, সব সম্পত্তি নিজেদের নামে লিখে দিতে কয়েক দিন ধরে তোরাব সরদারকে চাপ দিয়ে আসছিলেন তাঁর স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে ও জামাতা। এ নিয়ে পরিবারের মধ্যে কলহ সৃষ্টি হয়। সম্পত্তি ও জমি নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে গতকাল রাতে তোরাব আলীকে বেদম মারধর করেন চারজনে মিলে। এতে গুরুতর আহত হন তোরাব সরদার।

এ ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় আজ ভোরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান তিনি।
ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) আবদুর রব বলেন, আজ শনিবার সকালে ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ চারজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। তাঁদের নামে হত্যা মামলা করা হয়েছে। পরে তাঁদের পাবনা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই