মেইন ম্যেনু

পালকী সিরিয়ালের নির্মাতা এখন মোস্তফা মনন

বেসরকারি টেলিভিশন দীপ্ত টিভিতে প্রচারিত হচ্ছে মেগা সিরিয়াল ‘পালকী’। ছোটপর্দার দর্শকদের অনেক পরিবারে সন্ধ্যা রাতের বিনোদনের মোক্ষম মাধ্যম দীপ্ত টিভি`র ‘পালকী’। এটি রয়েছে আলোচনার তুঙ্গে। সিরিয়ালটির তিনটি প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন স্নিগ্ধা মোমিন, ইমতু রাতিশ, রানী আহাদ। এছাড়া আরো বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঝুনা চৌধুরী, নূনা আফরোজ, মোহাম্মদ বারী, সুজাতা, গীতশ্রী, শিরিন আলম, আরজুমান্দ আরা বকুল প্রমুখ।

দর্শকদের কাছে সিরিয়ালটির গ্রহণযোগ্যতা আরো বাড়াতে এর নির্মাণে যেমন পরিবর্তন আসছে, তেমনি নির্মাতাও পরিবর্তন হয়েছে। ‘পালকী’ সিরিয়ালটির নতুন নির্মাতা এখন মোস্তফা মনন। তিনি আগেই সিরিয়ালটির নির্মাণের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। কিন্তু এখন থেকে পুরোপুরি তার নির্দেশনায় নির্মিত হবে ‘পালকী’।

এ প্রসঙ্গে নির্মাতা মোস্তফা মনন বলেন, ‘আমি আগে বহু নাটক-সিরিয়াল নির্মাণ করেছি। তাছাড়া ‘পালকী’ সিরিয়ালটি দীপ্ত টেলিভিশনে প্রচারের প্রথম থেকে আমি যুক্ত ছিলাম। গেল ঈদের পর থেকে সিরিয়ালটির পর্বগুলো আমার নির্দেশনায় প্রচারে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ আমার নির্মাণের প্রশংসা করছেন। আগামীতে দর্শকদের কাছে সিরিয়ালটির জনপ্রিয়তা যাতে আরো বৃদ্ধি পায় সেই চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।’

পালকীর অভিনেতা ইমতু রাতিশ বলেন, ‘পালকী`র আগের নির্মাতার সঙ্গে অনেক সময় বোঝাপড়ায় গড়মিল হলেও মনন ভাইয়ার সঙ্গে তেমনটা হচ্ছে না। শুধু আমি নই, আমাদের পুরো ইউনিটের সঙ্গে তার রসায়নটা চমৎকার। আমরা সবাই খুব ভালো এনার্জি নিয়ে কাজ করছি। এমনও হয়েছে- মমন ভাইয়ার নির্দেশনায় টানা দিন-রাত শুটিং করেও কোন ঝামেলা পোহাতে হচ্ছেনা। এককথায় তিনি অসাধারণ একজন মানুষ। তাছাড়া নির্মাতা হিসেবেও তিনি অত্যন্ত মেধাবী।’

এক সাধারন মেয়ের অসাধারন হয়ে ওঠার গল্প নিয়ে মেগা সিরিয়াল ‘পালকী’। পরবর্তীতে সমাজের নানা ঘাট-প্রতিঘাত সহ্য করে, নানা প্রতিকূল পরিবেশের সঙ্গে তার মোকাবেলা করতে হয়। পালকী’র ‘পালকী’ চরিত্রে অভিনয় করেছেন স্নিগ্ধা মোমিন। সোহেল চরিত্রে ইমতু রাতিশ এবং সাবা চরিত্রে আছেন রানী আহাদ।

বর্তমানে ‘পালকী’ সিরিয়ালটি দু`শতাধিক পর্বের বেশি প্রচারিত হয়েছে। প্রতি শনি থেকে বৃহস্পতিবার সপ্তাহে ছয়দিন রাত ৯টায় ‘পালকী’ প্রচারিত হয়।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই