মেইন ম্যেনু

পাসপোর্টের ফি ও মেয়াদ দ্বিগুণ হচ্ছে

পাসপোর্টের পাতা না বাড়লেও ফি বাড়িয়ে প্রায় দ্বিগুণ করা হচ্ছে। একই সঙ্গে মেয়াদ বাড়িয়ে ৫ বছর থেকে ১০ বছর করা হচ্ছে।

সোমবার পাসপোর্ট অধিদফতর সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

একজন পাসপোর্ট গ্রহীতাকে ১৫ শতাংশ ভ্যাট দিয়ে জরুরি পাসপোর্টের ক্ষেত্রে জমা দিতে হবে ১২ হাজার ৬৫০ টাকা। আর সাধারণ পাসপোর্টের ক্ষেত্রে ভ্যাটসহ মোট জমা দিতে হবে ৬ হাজার ৩২৫ টাকা। তবে সাধারণ পাসপোর্টের মূল ফি ৫ হাজার ৫শ’টাকা। আর জরুরি পাসপোর্টের মূল ফি ১১ হাজার টাকা।

সেই সঙ্গে মেয়াদ বাড়ছে বাংলাদেশি পাসপোর্টের। বতর্মানে ৫ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট ইস্যুর নিয়ম থাকলেও এই মেয়াদ দ্বিগুণ করে ১০ বছর করার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন জারির অপেক্ষায় রয়েছে পাসপোর্ট অধিদফতর।

পাসপোর্ট অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, পাসপোর্টের ফি ও মেয়াদ বাড়লেও পাতা বাড়ছে না। এক্ষেত্রে বেশি বেশি বিদেশগামীদের আগের মতোই ভোগান্তিতে পড়তে হবে।

এদিকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, পাসপোর্ট অধিদফতরের সুপারিশকৃত মেয়াদ বাড়ানোর আবেদনের ফাইল দীর্ঘদিন মন্ত্রণালয়ে পড়ে আছে। সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, মেয়াদ বাড়ালে অনেক ঝামেলা হবে। বয়সের ক্ষেত্রে জটিলতা দেখা দেবে।আরো যাচাই বাছাই করে বিষয়টি দেখা হচ্ছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই সূত্রটি আরো জানায়, সম্প্রতি মন্ত্রণালয় থেকে ৩৩ শতাংশ পাসপোর্ট ফি বাড়ানোর প্রস্তাব করে অর্থ মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠায়। কিন্তু অর্থ মন্ত্রণালয় রাজস্ব আয় বাড়াতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবের সঙ্গে আরো ৫০ শতাংশ বেশি যোগ করে মোট ৮৩ শতাংশ ফি বাড়ায়।

এ বিষয়ে বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক এন এম জিয়াউল আলম জানান, পাসপোর্টের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত সরকারের। আর সেই সঙ্গে ফিও বাড়াচ্ছে সরকার। কিন্তু মেয়াদ বাড়ানোর সুপারিশের ফাইল দীর্ঘদিন মন্ত্রণালয়ে পড়ে আছে। প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়া পর্যন্ত আগের অবস্থায় থাকবে।






মন্তব্য চালু নেই