মেইন ম্যেনু

পায়ে জুতা পরে ঘুরতে যায় যে কচ্ছপ

ছোট্ট পা নিয়ে চলতে হয় তার। গতিও খুব কম। আস্তে আস্তে চলতে হয়। নেই কোন ক্লান্তি নেই। যেন বিরামহীন চলাচল। এভাবেইতো খরগোশকেও টেক্কা দিয়ে রেস জিতে রেকর্ড গড়ে ফেলেছিল কচ্ছপ। সে গল্প আজও মানুষের মুখে মুখে। রীতিমতো ঐ ঘটনাকেই ‘ধৈর্যের শিক্ষা’ হিসাবে সবাইকে শিক্ষা দেওয়া হয়। এবার পায়ে জুতা পড়ে ঘরতে দেখা গেল এক কচ্ছপকে। মালিকের সঙ্গে ঘুরতে বেড়িয়ে রীতিমতো খোশ মেজাজে দেখা গেছে কচ্ছপকে। এই হাঁটাহাঁটি চলে নিয়ম করে। ১৫ কেজি ওজনের এই কচ্ছপটির কিন্তু উৎসাহের শেষ নেই।

কচ্ছপটির বয়স এখন ৭। কচ্ছপটির মালিক ইয়াং যখন তাকে বাড়িতে আনেন, তখন সে ছিল খুব ছোট। এখন অনেক বড় হয়েছে। আদর-যত্নের কোন অভাব নেই। পোষা এই আদুরে কচ্ছপটিকে দেখতে ভিড় করেন পাড়া-প্রতিবেশীরাও। একটু নাকি শর্ট টেম্পার্ডও! তবে কাউকে কামড় দিতে কেউ কোন দিন দেখেনি।






মন্তব্য চালু নেই