মেইন ম্যেনু

পুকুরে ভেসে উঠল সাত লাখ টাকার মাছ

নরসিংদীতে একটি পুকুরে বিষ ঢেলে সাত লাখ টাকার বেশি মূল্যের মাছ মেরে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার শিবপুর উপজেলার বাঘাবো ইউনিয়নের খৈনকুট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি টের পেয়ে ভোরে স্থানীয় মৎস্য অধিদপ্তর ও থানা পুলিশকে জানান ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি। এদিকে পুকুরে মরা মাছ ভেসে ওঠার খবরে গ্রামের শত শত মানুষ পুকুরপাড়ে এসে ভিড় জমায়।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে খৈনকুট গ্রামের কৃষক হাবিবুর রহমান ফরাজী ৫০ শতাংশ জমির ওপর পুকুর কেটে রুই, কাতলা, তেলাপিয়া, কৈসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ চাষ করে আসছেন। প্রতিদিনের মতো গত শুক্রবার রাতে পুকুরে মাছের খাবার দিয়ে বাড়িতে ফিরে যান তিনি। ভোরে এসে দেখতে পান তাঁর পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে উঠেছে। পরে বিষয়টি স্থানীয় মৎস্য অধিদপ্তর ও থানা পুলিশকে জানান তিনি।

এত বিপুল পরিমাণ মাছের মৃত্যুর ঘটনায় কান্নায় ভেঙে পড়েন হাবিবুর রহমান ফরাজী। তিনি জানান, কৃষিকাজ করে সারাজীবন তিনি যা সঞ্চয় করেছেন তার পুরোটুকুই এই পুকুরের মাছের পেছনে ব্যয় করেছেন। এমনকি মাছের খাবার সরবরাহ করার জন্য ঋণও নিতে হয় তাঁকে। সেই মাছ এক রাতেই বিষ দিয়ে মেরে ফেলেছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা।

এ সময় স্থানীয় মাছচাষি নূরুজ্জামান বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে এই এলাকায় মাছের চাষ করছি। কিন্তু এভাবে মাছ মরে ভেসে ওঠার ঘটনা দেখিনি। পুকুরে অক্সিজেনের অভাব হলে পাঁচ-দশটা মাছ মরে ভেসে উঠতে পারে। কিন্তু বিষ প্রয়োগ না করা হলে একসাথে এতো মাছ মরার কথা নয়।’

শিবপুর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘খবর পেয়ে মৎস্য বিভাগের প্রতিনিধি ক্ষতিগ্রস্ত পুকুর পরিদর্শন করেছে। পুকুরের পানি ও মাছ পরীক্ষা ছাড়া মাছ মরার সুনিশ্চিত কারণ বলা যাচ্ছে না। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষককে কিভাবে সহযোগিতা করা যায় সেই ব্যাপারে আমরা কাজ করছি।’






মন্তব্য চালু নেই