মেইন ম্যেনু

পুদিনা পাতার সাহায্যে পান পোকামাকড় ও ইঁদুরের হাত থেকে মুক্তি পান সহজ এই উপায়ে…

পোকামাকড় মারার জন্য ব্যবহৃত এইসব স্প্রে যে আপনার শরীরেরও ক্ষতি করছে তা-ও সম্ভবত আপনার অজানা নয়। তাহলে উপায়? উপায় একটাই, পোকামাকড় তাড়ানোর কোনও প্রাকৃতিক উপায় বেছে নেওয়া।

স্কুলে বাস্তুতন্ত্র বা ইকো সিস্টেমের প্রাথমিক পাঠ সকলেই পেয়েছেন। তা থেকে জানা গিয়েছে, পৃথিবীতে প্রাকৃতিক ভারসাম্য বজায় রাখতে হলে কীটপতঙ্গের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে, নিজের বাড়িতে পোকামাকড়ের উতপাৎ মুখ বুজে সহ্য করতে হবে। বাড়িতে আরশোলা, মাকড়সা, টিকটিকি বা ইঁদুরের উতপাতে বিরক্ত হন না এমন‌ গৃহস্থ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। তাছাড়া শুধু তো বিরক্তি তো নয়, পোকামাকড় বিভিন্ন রোগের জীবাণুও বহন করে আনে বাড়িতে। এদের হাত থেকে মুক্তি পেতে, এবং এদের ঘরে ঢোকা বন্ধ করতে আপনি হয়তো ব্যবহার করেন বিভিন্ন পোকা মারার স্প্রে কিংবা সাহায্য নেন পেস্ট কন্ট্রোলের। কিন্তু পোকামাকড় মারার জন্য ব্যবহৃত এইসব স্প্রে যে আপনার শরীরেরও ক্ষতি করছে তা-ও সম্ভবত আপনার অজানা নয়। তাহলে উপায়? উপায় একটাই, পোকামাকড় তাড়ানোর কোনও প্রাকৃতিক উপায় বেছে নেওয়া। আছে তেমন কোনও উপায়? বিজ্ঞানীরা বলছেন, আছে। আসুন, জেনে নিই।

প্রথমেই জেনে নেওয়া যাক, কী করতে হবে। একমুঠো কচি পুদিনা পাতা কয়েক কাপ জলে ভাল করে ফুটিয়ে নিন। এবার জলটা ঠান্ডা হতে দিন। তারপর পাতা গুলো ফেলে দিয়ে জলটা একটা স্প্রে বটলে ভরে নিন। তারপর ঘরের দরজা-জানলায় ভাল করে স্প্রে করে দিন সেই জল। ব্যস্, আপনার কাজ শেষ। সপ্তাহে বার দু’য়েক এই কাজ করাই যথেষ্ট। বাড়িতে স্প্রে বটল না থাকলে হাতে করে জল ছিটিয়ে দিলেও চলবে।

আসলে পুদিনা পাতায় থাকে একটি বিশেষ সুবাস, যা কীটপতঙ্গ বা ইঁদুরের মতো প্রাণী সহ্য করতে পারে না। ফলে ঘরের দরজা-জানলায় পুদিনা পাতা সিদ্ধ করা জল ছিটিয়ে দিলে তারা আর ঘরে ঢোকার সাহস করে না। কাজেই আপনার বাড়ি থাকে কীটপতঙ্গ মুক্ত। আর পুদিনার মিষ্টি গন্ধ আমোদিত করে রাখে আপনার ঘরের পরিবেশকে।






মন্তব্য চালু নেই