মেইন ম্যেনু

পুরুষেরা হাতের যত্ন নেবেন যেভাবে

ছেলেদের হাত যেহেতু বেশিরভাগ সময় খোলা থাকে, তাই সূর্যের তাপ ও বাইরের ধুলাবালির কারণে শরীরের অন্য স্থানের চেয়ে হাতের ত্বকের ক্ষতিটা একটু বেশি হয়ে থাকে। বাইরে বের হলে সূর্যের তাপ ও বাইরের ধুলাবালি সবচেয়ে বেশি লাগে হাতে। হাত যেহেতু কাপড়ে ঢাকা থাকে না, তাই ছেলেদের হাতের জন্য কিছুটা অতিরিক্ত যত্ন নিতে হবে। হাত ও নখের যত্নে ম্যানিকিওর পারে নখ ও হাতকে সুন্দর রাখতে।

ম্যানিকিওর :

ঘরে বসেই নিতে পারেন আপনার হাত ও নখের যত্ন। এ জন্য ম্যানিকিওর করার আগে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সংগ্রহ করতে হবে। যেমন-নেইল কাটার, নেইল ফাইল, কিউটিক্যাল অয়েল, তুলা, স্ক্র্যাব, ব্রাশ, হ্যান্ডক্রিম, বাফার, সল্ট, স্যাভলন, লেবু ও হালকা গরম পানি।

একটি পাত্রে উষ্ণ গরম পানি নিন। তাতে শ্যাম্পু, লেবু, সল্ট, স্যাভলন মিশিয়ে নিন। আপনার হাত দুটি ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মতো ভিজিয়ে রাখুন। এবার হাতের তালু থেকে কনুই পর্যন্ত ব্রাশ দিয়ে ঘষতে থাকুন। ঘষা হয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন এবং মুছে নিন। এবার নেইল কাটার দিয়ে নখের অতিরিক্ত অংশ কেটে ফেলুন। নেইল ফাইল দিয়ে ঘষে নখ চাহিদামতো আকারে নিয়ে আসুন। এবার হাত দুটি পাঁচ মিনিট স্ক্র্যাব ম্যাসাজ করুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে মুছে নিন। এবার বাফার দিয়ে নখের ওপরের লেগে থাকা ময়লা ঘষে পরিষ্কার করে নিন।

এবার ময়েশ্চারাইজিং লোশন দিয়ে পাঁচ মিনিট ম্যাসাজ করুন। নখ ভাঙার সমস্যা থাকলে প্রতি সপ্তাহে একবার অলিভ অয়েল গরম করে নখ ও আঙুল ম্যাসাজ করুন। এ ছাড়াও প্রতিদিন রাতে ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম দিয়ে নখ ম্যাসাজ করুন। সপ্তাহে এক দিন আধা কাপ মসুর ডাল বাটা, আধা কাপ গুঁড়ো দুধ এবং এক চা চামচ গ্লিসারিন দিয়ে মিশ্রণ বানিয়ে ১৫ মিনিটের মতো হাতে লাগিয়ে রাখুন। এবার শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন।

এছাড়াও যা করতে পারেন

* হাতে নিয়মিত লেবুর রস বা যে কোনো ভালো ক্রিম ম্যাসাজ করুন। তা হলে হাতের ত্বক নরম থাকবে। কালোভাব দূর হবে। লেবুর রস, দই ও ময়দা মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে লাগান।

* মাসে অন্তত একবার ম্যানিকিওর করান। হাত পরিষ্কার থাকবে। নখ বা কুনির সমস্যা কমবে।

* হাতের রুক্ষভাব কমানোর জন্য গোলাপ জলের সঙ্গে গ্লিসারিন মিশিয়ে পায়ে লাগান। আধা ঘণ্টা পরে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই