মেইন ম্যেনু

পুরুষের বাজে এমন ৮টি ফ্যাশন যা মেয়েদের একেবারেই অপছন্দ

ফ্যাশনে পুরুষরা স্টাইল সংক্রান্ত ভুলগুলো এড়িয়ে চলতে চান। নারীদের চোখে যা হাস্যকর এমন ফ্যাশন করতে চান না তারা। সোশাল মিডিয়া রেডিট-এ নারীরা পুরুষদের সবচেয়ে খারাপ স্টাইলগুলো তুলে ধরেছেন।মেয়েদের মতামতের ভিত্তিতে তুলে ধরা হয়েছে পুরুষদের সবচেয়ে খারাপ ৮টি ফ্যাশনের কথা।

জিন্সের হাফ প্যান্ট : এ ধরনের প্যান্ট গরমের দিনে কিছুটা আরামদায়ক হয়। আরাম চাইলে সুতি কাপড়ের হাফ প্যান্ট পরা যেতে পারে। জিন্সের হাফ প্যান্ট নারীদের চোখে বেশ হাস্যকর।

ব্যাগি জিন্স : আগের আমলে এই স্টাইলটি প্রচলিত ছিল। ঢিলেঢালা জিন্সের প্যান্ট নারীরা একদমই পছন্দ করেন না। তাদের চোখে সেমি ন্যারো বা স্কিট টাইট অনেক বেশি স্মার্ট।

মাথার ক্যাপ : একসময় পশ্চিমা বিশ্বে বেশ প্রচলিত ছিল। কিন্তু এখন এগুলো একবারেই অদ্ভুত। নারীদের চোখে একদম বাজে। অন্তত যেন মানিয়ে গেছে এমন একটি ক্যাপ পরা উচিত।

এলোমেলো দাড়ি-গোঁফ : এমন স্টাইলের পুরুষদের সংখ্যা নেহায়েত কম নয়। জঙ্গলের মতো দেখা গেলে একটু ছেঁটে নিতে হয়। কিন্তু ট্রিমার ব্যবহার করে এলোমেলো ছাঁট দিলে তা কখনোই ভালো লাগে না নারীদের কাছে। তার চেয়ে ক্লিন শেভ করা অনেক ভালো। খোঁচা খোঁচা দাড়ি-গোঁফ রাখা যায়। কিন্তু তা যে নিখুঁত ছাঁটের হতে হবে।

চশমা পরা : চোখের সমস্যার কারণে চশমা তো পরতেই হবে। শুধু ফ্যাশনের জন্য চোখে চশমা আরেক বিষয়। কেউ যদি এমনিতেই চশমা পরেন, তবে নারীদের চোখে নির্বোধের মত। অপ্রয়োজনে চশমা না পরাই ভালো।

স্যান্ডেলের সঙ্গে মোজা : এটি কোনো ফ্যাশন? এমনটাই মনে করেন নারীরা। মোজা পরে জুতা পায়ে দিতে হয়- এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু মোজার ওপর স্যান্ডাল চাপানো একেবারেই বেমানান।

সামনে কুঁচি দেয়া খাঁকি প্যান্ট : এ ধরনের প্যান্টের সামনে কুঁচি থাকা বড়ই বেমানান। কুঁচি দিলে এমনিতেই সামনের অংশটা ঢিলে হয়ে থাকে। স্লিম ফিট চিনোস প্যান্টগুলো মেয়েদের কাছে খুবই পছন্দের।

প্রিন্টের শার্ট : হাবিজাবি আঁকানো প্রিন্ট করা শার্ট খুবই বিরক্তিকর। এগুলোকে বলে লাউড শার্ট। এমন শার্টে পুরুষদের বিদঘুটে লাগে বলে মত দিয়েছেন নারীরা। লতা-পাতা, ফুল-ফল বা পাখি কিংবা আগুনের ছাপ দেয়া শার্ট এড়িয়েই চলা ভালো।






মন্তব্য চালু নেই