মেইন ম্যেনু

পুরো বাসাই জাল টাকার কারখানা, সাংবাদিক পরিচয়ে ব্যবসা

জাল টাকা তৈরি করে রাজধানীসহ সারা দেশে সরবরাহ করছে এমন একটি চক্রের প্রধান হামিদুর রহমানকে আটক করেছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর আদাবরের বায়তুল আমান হাউজিং এলাকায় হামিদুরের বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার সিনিয়র সহকারী পরিচালক মাকসুদুল আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। আটকের পর হামিদুর র‌্যাবকে জানিয়েছেন, প্রেস লেখা মোটরসাইকেল ব্যবহার করে তিনি জাল টাকা সরবরাহ করতেন।

হামিদুরের বাসা থেকে দৈনিক মুক্ত খবরের একটি পরিচয়পত্র ও প্রেস লেখা একটি মোটরসাইকেলও জব্দ করা হয়েছে।

র‌্যাব কর্মকর্তা মাকসুদুল আলম জানান, আদাবরের আমান হাউজিং এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে প্রথমে হামিদুরের সহযোগি মোছা. জামিলা আক্তার মনিজাকে আটক করে র‌্যাব। এরপর তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতেই হামিদুরকে আটক করা হয়।

বায়তুন আমান হাউজিংয়ের ১৫ নম্বর রোডের ৯০৩ নম্বর বাসার ৬ষ্ট তলার ৫/এ ফ্ল্যাটে হামিদুর একটি ছোটখাটো টাকশাল এবং জাল টাকা তৈরির কারখানা তৈরি করেছিলেন বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

অভিযানের সময় হামিদুরের দুই সহযোগি পালিয়ে গেছে জানিয়ে মাকসুদুল আলম বলেন, র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে আলামিন বাবু ওরফে কালাবাবু ও আসমা আক্তার টুকটুকি পালিয়ে যায়। দীর্ঘদিন ধরে ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে জাল টাকা তৈরি ও বাজারজাত করছে চক্রটি।

অভিযানে হামিদুরের বাসা থেকে জাল টাকা তৈরির সরঞ্জামাদি এবং ২৫ লাখ জাল টাকা উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার সরঞ্জামাদির মধ্যে টাকার নিরাপত্তা সুতাযুক্ত কাগজ ৫ কেজি, টাকা তৈরির ট্রেসিং কাগজ ৩০ কেজি, ল্যাপটপ একটি, প্রিন্টার চারটি, এক হাজার টাকার ছাপযুক্ত কাগজ ১১০টি, জাল টাকা তৈরির ডাইস ১২টি, বোর্ড দুইটি, লেমিনেটিং মেশিন একটি, কাঁচের ফ্রেম চারটি, অসংখ্য প্রিন্টার কার্টিজ এবং ২০ কেজি কেমিকেল, নিরাপত্তা সুতার রোল চারটি, টাকা কাটার ছুরিসহ অন্যান্য সরঞ্জামাদি রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই