মেইন ম্যেনু

পৃথিবীর কত কিছুই আমাদের অজানা, আসুন অদ্ভুত কিছু তথ্য জানি (পর্ব ২)

plaban2003_90171160655244002c74ba3.50986268_xlarge

২৬।উটের দুধের দই
উটের দুধ খেয়েছেন কখনও? না খেয়ে থাকলে খেয়ে দেখতে পারেন। উটের দুধের দই কিন্তু কখনও খাবে না। কারণ? আসল উটের দুধে কখনও দই হয় না যে…।


 

২৭।মজার ইংরেজি
১৫ অক্ষরের একমাত্র একটি শব্দ বলুনতো, যেটিতে একটি অক্ষরও দুইবার ব্যবহার করা হয়নি। কি, পারলেন না? – uncopyrightable;


 

plaban2003_1504368095524400e511fa5.14542051_xlarge

২৮।বাঘের চামড়া তুলে নেব আমরা
বাঘের শরীর ডোরকাটা বা ছিটফোট কি কারণে হয় জানেন ? এর চামড়ার জন্য, পশমের জন্য না ।


 

plaban2003_15266383855524401ae44638.03329097_xlarge

২৯।আলফ্রেড নোবেল
বিভিন্ন ক্ষেত্রে অনন্য অবদানের জন্য (শান্তি সহ) যে নোবেল পুরুষ্কার দেয়া হয়, সেটি যার নামে সেই আলফ্রেড নোবেল (Alfred Nobel) ছিলেন ডাইনামাইটের আবিষ্কারক । অবশ্য তিনি মানব কল্যাণের জন্যই ডাইনামাইট আবিষ্কার করেছিলেন, আর এর পর থেকে মানব জাতি সেটি নিজেদের অকল্যাণের জন্যই বেশী ব্যবহার করে আসছে ।

১৮৮৮ সালে যখন আলফ্রেড নোবেলএর ভাই লুদভিগ (Ludvig)মারা যান, তখন এ ঘটনায় ফ্রান্সের কিছু দৈনিক পত্রিকা ভুলক্রমে এটিকে “আলফ্রেড নোবেল” এর মৃত্যু হয়েছে বলে তাদের পত্রিকাগুলোতে প্রকাশ করে। পত্রিকাগুলোর হেডলাইন ছিল এরকম – “The merchant of death is dead”, বংলায় যার অর্থ দাঁড়ায় “মৃত্যুর ব্যবসায়ি আজ মৃত্য”। আলফ্রেড নোবেল ব্যপারটি যথাযথই অনুধাবন করতে পেরেছিলেন সেদিন ।

অতঃপর ১৮৯৫ সালের ২৭শে নভেম্বর আলফ্রেড নোবেল তাঁর সমস্ত সম্পত্তি এই নোবেল প্রাইজের যাবতীয় খরচ বহনের জন্য উইল করে দেন ।
আফসোস্‌ আমাদের বড় বড় নেতারা যদি এই ব্যপারটি একটু অনুধাবন করতে পারতেন !!


 

0f0ba446d37af9cb6ef3ec71dfb27d10_xlarge

৩০।খাদ্য মজুদ
সস্তায় খাদ্য পেলে বেশী করে কিনে রাখেন? ঐ যে চাল, ডাল, মাছ, মুরগী এই আর কি… । বলি, সস্তায় পেলে মধু’ও একটু বেশী করে কিনে রাখবেন । কারণ আর কিছুই না, সাধারণ একটি কাঁচের জারে রেখে দিন আর অনেকদিন রেখে খেতে পারবেন, কতদিন? – বেশী না, মাত্র তিন হাজার বছর। নষ্ট হবে না ।


 

4d2e75213657349ddb796697eafcb58f_xlarge

৩১।কত কষ্টের এই মধু!
এখন মধু তো কিনবেন, খাবেনও। কিন্তু জানেন মাত্র এক পাউন্ড (প্রায় আধা কেজি) মধুর জন্য একটি মৌমাছিকে প্রায় বিশ লক্ষ ফুল ঘুরে আসতে হয় ? এত কস্টকর ! এ জন্যেই বোধহয় অমন হুল ফোঁটায় !


 

plaban2003_121442489055253b5aac85e8.69045462_xlarge

৩২। কোকা কোলা
“কোকা কোলার রং কি জানেন? কি… কালো? মোটেই না। রং না মেশালে কোকা কোলার রং হত সবুজ”।
– জানেন? ইন্টারনেটে অনেক জায়গায় প্রকাশিত উপরোক্ত তথ্যটি একটি গুজব! আমিও জানতাম না, কিছুক্ষণ আগে জানতে পারলাম।
তবে আমার কি মনে হয় জানেন? কোকা কোলা সবুজ হলেই বেশী আকর্ষণীয় হোত হয়ত!


 

fc96814a52df69fefc67149255491c61_xlarge

৩৩।মথ এর মাথা নষ্ট
মথ আছে না? ঐযে, প্রজাপতির মত দেখতে? ভূমিকম্পের সময় নাকি ওরা আর উড়তে পারে না, কারণ? আমারতো মনে হয়, ভয়ে হাত পা ঠান্ডা হবার যায় আরকি… ।


 

5871a2fb5eabdd7aa62ff25025ceee8e_xlarge

৩৪।অ্যান্টার্কটিকায় যাবেন নাকি?
অ্যান্টার্কটিকার সাদা বরফের দেশে ঘুরতে যাবেন নাকি? যান, আমি কিন্তু যাব না! কেন? ঐ সাদা বরফের প্রায় শতকরা তিন ভাগই নাকি পেঙ্গুইনের জমীভূত প্রস্রাব !


 

Sensory-Ice-Ball-Play-3

৩৫।বরফ জমান তাড়াতাড়ি
আমি বলি কি, অ্যান্টার্কটিকায় যাবার চেয়ে বরং ঘরেই তাড়াতাড়ি কিছু বরফ জমিয়ে নিন । আর গড়াগড়ি খান ওটার ওপর। লে এবার, তাড়াতাড়ি বরফ জমাবেন কি ভাবে ? সব কিছুই যদি আমার বলতে হয়, তাহলে কি আর করা! হাতের কাছে গরম পানি আছে? তাহলে ওটিই রেখে দিন ফ্রিজারে। কারণ ঠান্ডা পানির চেয়ে গরম পানিই নাকি তাড়াতাড়ি বরফে পরিণত হয়।


 

(বিঃদ্রঃ এই ব্যাপারগুলো নিয়ে যথেষ্ঠ বিতর্ক আছে। এই প্রবন্ধটি সংগৃহীত। এর পুরোটা সত্য কিনা সেটা অনুসন্ধান সাপেক্ষ)

আরও পড়ুন:

পৃথিবীর কত কিছুই আমাদের অজানা, আসুন অদ্ভুদ কিছু তথ্য জানি (পর্ব ১)


পৃথিবীর কত কিছুই আমাদের অজানা, আসুন অদ্ভুদ কিছু তথ্য জানি (পর্ব ৩)


পৃথিবীর কত কিছুই আমাদের অজানা, আসুন অদ্ভুদ কিছু তথ্য জানি (পর্ব ৪)


পৃথিবীর কত কিছুই আমাদের অজানা, আসুন অদ্ভুদ কিছু তথ্য জানি (পর্ব ৫)


পৃথিবীর কত কিছুই আমাদের অজানা, আসুন অদ্ভুদ কিছু তথ্য জানি (শেষ পর্ব)







মন্তব্য চালু নেই