মেইন ম্যেনু

পৃথিবীর সবচাইতে দামী ৬ জিনিস, যা সকলকে বিস্মিত করবে (দেখুন ছবিতে)

কোনো একটি জিনিসের দাম অনেক সময় শুধুমাত্র জিনিসটি তৈরি করার মূল অর্থ দিয়ে পরিমাণ করা হয় না, বেশীরভাগ সময়ই তা পরিমাপ করা হয় স্ট্যাটাসের ভিত্তিতে। আর যার ফলে কিছু সাধারণ জিনিসেরও দাম হয়ে যায় আকাশচুম্বী। আজকে দেখে নিন এমনই ৬ টি জিনিস যা অসম্ভব বেশী দামে কিনে নেয়া হয়েছে এবং সে কারণেই বিশ্ববিখ্যাতের স্থানে জায়গা করে নিয়েছে জিনিসগুলো।

p1

১) হেইঞ্জম্যান ক্রিস্টাল পিয়ানো, ৩.২২ মিলিয়ন ইউএস ডলার

এই পিয়ানোটি বিশ্বের সবচাইতে দামী পিয়ানো হিসেবে ধরা হয়। পুরোটাই ক্রিস্টালে তৈরি এই পিয়ানোটি নিলামে ৩.২২ মিলিয়ন ইউএস ডলারে বিক্রি হয়ে যায়। এই পিয়ানোটি অনেক বড় হলরুমে বাজানোর জন্য তৈরি করা হয়েছিল। ২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিক গেমসে এই পিয়ানোটি প্রথম বাজানো হয়।

p2

২) আইফোন ৫, ১৫.৩ মিলিয়ন ইউএস ডলার

বাজারে আইফোন ৬ প্লাস চলে আসার পর আইফোন ৫ এর দাম কমেই গিয়েছে। কিন্তু উপরের ছবির সাথে অন্যান্য সাধারণ আইফোনের তুলনা করে ভুল করবেন না যেনো। এই আইফোন ৫ টি তৈরি করা হয়েছে ৬০০ সাদা ডায়মন্ড দিয়ে, অ্যাপেল লোগো তৈরি হয়েছে খাঁটি স্বর্ণ ও ৫৩ টি সাদা ডায়মন্ড দিয়ে, ফোনটির স্ক্রিন তৈরি হয়েছে স্যাফায়ার গ্লাস এবং বডি তৈরি করা হয়েছে ১৩৫ গ্রাম ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ দিয়ে। সবচাইতে আকর্ষণীয় হচ্ছে, এই ফোনের হোম বাটনটি তৈরি হয়েছে ব্ল্যাক ডায়মন্ড দিয়ে।

p3

৩) VacationRental.com ডোমেইন, ৩৫ মিলিয়ন ইউএস ডলার

একটি ডোমেইনের মূল্য আর কতোই বা হতে পারে বলুন? যাদের এই সম্পর্কে ধারণা রয়েছে তারা বেশ ভালো করেই জানেন ডোমেইনের মূল্য কতোটা হয়। কিন্তু সব রেকর্ড ভেঙে দিয়ে ২০০৭ সালে VacationRental.com নামক ডোমেইনটি বিক্রয় হয় ৩৫ মিলিয়ন ইউএস ডলারে। HomeAway এর ফাউন্ডার ব্রেইন শারপেলস এই ডোমেইনটি অরিতিক্ত মূল্য দিয়ে কেনার কথা স্বীকার করেন এবং তিনি জানান, তার প্রতিযোগী কোনো কোম্পানি যেন এটি কিনতে না পারে, সে কারণেই তার এই অতিরিক্ত মূল্য।

p4

৪) ফেরারি জিটিও ২৫০ রেসার, ৫২ মিলিয়ন ইউএস ডলার

রেসারদের কাছে বর্তমানে সবচাইতে আকর্ষণীয় গাড়িটি হচ্ছে ফেরারি জিটিও ২৫০ রেসার নামের এই গাড়িটি। এই গাড়িটি এখন পর্যন্ত সবচাইতে দামী রেসিং কারের স্থানটি দখল করে আছে যার মূল্য ৫২ মিলিয়ন ইউএস ডলার।

p5

৫) কার্ড প্লেয়ার, পেইন্টিং, ২৬০ মিলিয়ন ইউএস ডলার

১৮৯৩ সালে পল সেযান্নেপার আঁকা এই পেইন্টিংটি এখন পর্যন্ত সবচাইতে দামী পেইন্টিংস হিসেবে পরিচিত। এই পেইন্টিং টি ৫ টি সিরিজ কাজের একটি আর একারণেই এর মূল্য আকাশ ছোঁয়া। গলফ কিংডোম অফ কাতার ২৬০ মিলিয়ন ইউএস ডলারে এই ছবিটি কিনে নেয়।

p6

৬) ম্যারিনা বে স্যান্ডস, ৬ বিলিয়ন ইউএস ডলার

৫৭ তলা বিশিষ্ট ১৯৪ মিটার উচ্চতার এই বিল্ডিংটির মূল্য ৬ বিলিয়ন ইউএস ডলার। এটি মূলত একটি রিসোর্ট যেখান থেকে সিঙ্গাপুরের ম্যারিনা বে এর ফ্রন্ট ভিউ পাওয়া যায়। ২০ হেক্টর স্থান জুড়ে তৈরি করা এই বিল্ডিংটিতে রয়েছে পৃথিবীর সবচাইতে বড় আট্রিয়াম ক্যাসিনো, প্রায় ৩৪০ মিটারের একটি স্কাই পার্ক, ইনফিনিটি সুমিং পুল এবং আরও অনেক কিছু যা আপনার কল্পনারও বাইরে।

সূত্র: storyeo






মন্তব্য চালু নেই