মেইন ম্যেনু

পৃথিবীর সবচেয়ে কমবয়সী দুই সিইও, অবাক হবেন আপনিও

সিইও হলেন একটি প্রতিষ্ঠানের কর্তা ব্যক্তি। এ পদের জন্য মেধাবী, অভিজ্ঞ, চৌকস ব্যক্তিদের নির্বাচন করা হয়। কিন্তু সেই পদে যদি ১০ বা ১২ বছরের খুদে অধিষ্ঠিত হন এবং দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন তবে কি বলবেন? হ্যা, পৃথিবীর সবচেয়ে খুদে দুই সিইও’র কথা বলছি।

তাদের প্রতিভা এতটাই নজর কেড়েছে যে, বিশ্বজুড়ে আজ তারা সমাদৃত। গেটস ফাউন্ডেশন পর্যন্ত এই দুই ভাইকে তাদের সেমিনারে ইন্টারভিউ করেছে। এমনকি, দুই খুদে প্রতিভাকে কুর্নিশ জানিয়েছে খোদ অ্যাপেল।

তারা দু জনেই প্রতিবেশি ভারতের নাগরিক। এদের এক জনের নাম শ্রাবণ কুমারন। অন্যজন সঞ্জয় কুমারন। শ্রাবণের বয়স ১২। আর সঞ্জয় ১০ বছরের। এই ছোট্ট বয়সেই দু’জনে একটি সংস্থার সিইও। দুই ভাইকেও আগামী দিনে দেশের প্রতিভাবান উদ্যোগপতি হিসাবে গণ্য করা হচ্ছে।

ইতিমধ্যে শ্রাবণ ও সঞ্জয় যা করেছে, তা জানার পরে অবাক হতেই হবে। ২০১২ সালে ‘গো ডাইমেনশন’ নামে একটি সফটওয়ার ফার্ম খোলে এই দুই ভাই। কারণ, তারা এমন একটি মোবাইল অ্যাপলিকেশন বানিয়েছে, যা ‘অ্যাপ স্টোর’-এ ৫ রেটিং পেয়েছে।

গত চার বছরে শ্রাবণ ও সঞ্জয় ১১টি অ্যাপ্লিকেশন বানিয়েছে। যার অন্তত ৭০ হাজার কপি ডাউনলোড হয়েছে। দু’জনেরই আদর্শ স্টিভ জোবস। ‘ক্যাচ মি কপ’ নামে একটি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন বানিয়ে দুই ভাই আইটি ফার্মগুলির নজরে আসে। এর আগে অবশ্য খেলার ছলে দেড়শোটি অ্যাপ বানিয়ে হাত পাকিয়ে ফেলেছিল শ্রাবণ ও সঞ্জয়। তাদের তৈরি অ্যাপ ‘অ্যালফাবেট বোর্ড’-তে ‘অ্যাপ স্টোরে’ তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

শ্রাভণ ও সঞ্জয়ের লক্ষ্য দেশের অন্তত ৫০ শতাংশ স্মার্ট ফোন ব্যাবহারকারীর তাদের তৈরি অ্যাপ পৌঁছে দেওয়া। দুই ভাইকে ‘ইয়াংগেস্ট মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামার’ বলে সম্মানিত করেছে অ্যাপল।






মন্তব্য চালু নেই